সোমবার, ১৮ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
টাঙ্গাইলে বাসচাপায় প্রাণ গেল মোটরসাইকেলের ৩ আরোহীর  » «   সোমবার থেকে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচির ঘোষণা শিক্ষকদের  » «   বাবার জন্যে ভালোবাসা: এড. শাকী শাহ ফরিদী  » «   বিশ্ব বাবা দিবস আজ  » «   সংবাদ সম্মেলনে ফখরুল: যেকোনো সময় প্যারালাইজড হয়ে যেতে পারেন খালেদা জিয়া  » «   সিলেট নগরীর শিবগঞ্জে ছুরিকাঘাতে স্কুলছাত্র নিহত ১  » «   দুর্দান্ত আইসল্যান্ডে শুরুতেই হোঁচট আর্জেন্টিনার!  » «   জগন্নাথপুরে সংঘর্ষে নারী ও শিশু সহ আহত ১১  » «   যুক্তরাষ্ট্রে ধর্মীয় উৎসব আমেজে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত, প্রেসিডেন্ট দম্পতির ঈদ শুভেচ্ছা  » «   চুনারুঘাটে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, নতুন নতুন এলাকাপ্লাবিত  » «  

প্রশ্নফাঁসকারীদের ধরিয়ে দেন, তাদের শাস্তি দেব



সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রধানমন্ত্রী
জাতীয় ডেস্ক:: সাংবাদিকদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রশ্নফাঁসকারীদের ধরিয়ে দেন, তাদের শাস্তি দেব। পরীক্ষায় বহুনির্বাচনী প্রশ্ন বন্ধ করে দেব।

আপনারা লেখেন, আমরা বন্ধ করে দেব। কিন্তু এটা নিয়ে সুর তোলে একবার মন্ত্রী, সচিব আবার সরকারকে দায়ী করা হচ্ছে। দয়া করে একটু খুঁজে দেন, কে প্রশ্নফাঁস করল—তার শাস্তি দেব আমরা।

আজ সোমবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে ইতালি সফর শেষে সংবাদ সম্মেলন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা বলেন।

প্রশ্নফাঁস বিষয়ে শেখ হাসিনা বলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস নতুন কিছু না। যুগ যুগ ধরে এটা চলে আসছে। কখনো সামনে চলে আসে, কখনো আসে না। প্রযুক্তি যেমন সুযোগ তৈরি করে দেয়, আবার সমস্যাও তৈরি করে দেয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পরীক্ষার আগের দিন তো প্রশ্নফাঁস হয় না। প্রশ্নফাঁস হয় পরীক্ষার ২০ মিনিট আগে। কার এমন ‘ফটোজেনিক মেমোরি’ আছে যে, প্রশ্ন দেখে ২০ মিনিটে সবকিছু মুখস্থ করে লিখে ফেলে?

তিনি বলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস, প্রশ্নপত্র ফাঁস বলে একটি সুর তুলে দেওয়া হচ্ছে। তাই বলে মন্ত্রী, সচিবকে চলে যেতে হবে? তাঁরা তো এটা ফাঁস করে চলে আসেনি।

শেখ হাসিনা বলেন, সাইবার ক্রাইম একটি বিরাট সমস্যা। এ দেশসহ সারা বিশ্বে এ সমস্যা আছে। সিআরপিসিতে যে সমস্ত ধারা আছে, সেগুলো। আপনাদের এত ভয় কেন? কেউ যদি এমন অপরাধ করেন, তাহলে তার ক্ষেত্রে এটি প্রয়োগ হবে। ফৌজদারি আইন (সিআরপিসি) অনুযায়ী কেউ অপকর্ম না করলে সেখানে অপপ্রয়োগ কেন হবে। প্রযুক্তি যেমন সুযোগ করে দেয়, মাঝে মাঝে দুঃসহ যন্ত্রণাও দেয়।