বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ভালবাসা দিবসের নাটক ‘তোমার বসন্ত দিনে’



বিনোদন ডেস্ক::  আসছে ভালোবাসা দিবসে বেসরকারি টেলিভিশন দেশটিভিতে প্রচারিত হতে যাচ্ছে বিশেষ নাটক ‘তোমার বসন্ত দিনে।’ যারযিস আহমেদ রচনা ও আবু হায়াত মাহমুদ পরিচালনায় নাটকে অভিনয় করেছেন অপূর্ব, স্নিগ্ধা মোমিন, সোলায়মান খোকা ও আরো অনেকে।

নাটকের গল্পে দেখা যাবে, এক রক্ষণশীল পরিবারে জন্ম রেবেকার। এক নির্মম গাড়ি দুর্ঘটনায় বাবা মা মারা গেলে রেবেকা সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশে খালার বাড়িতে চলে আসে। খালা খালুও বেশ রক্ষণশীল। এসব তার অতীত গল্প। রেবেকা কখনো বাইরে বেরোয় না। কলেজ ছুটি হলে মাটির দিকে তাকিয়ে বাসায় ফেরে। বন্ধু-বান্ধবী কারো সাথে কথা বলে না। বাইরের জগতকে ভীষণ ভয় পায় সে। বাস্তব জগতের সাথে তাল মেলাতে না পারা রেবেকাকে খালা খালু বেশ পছন্দ করে। কিন্তু চারদেয়ালে থাকা রেবেকার শারীরিক সমস্যা আছে। শ্বাস-কষ্ট এটাওটা অসুখ লেগেই থাকে। পড়াশোনাও ঠিকমত করতে পারে না। পরীক্ষাতে কোনরকম পাশ করতে পারলেই একরকম অসূর্যস্পর্শা এই রেবেকার বিয়ে হবে। প্রতিবেশী হারুন সাহেব, রিটায়ার্ড সরকারী কর্মকর্তা বর্তমানে হোমিওপ্যাথি প্রাকটিস করেন, রেবেকার চিকিৎসা করছেন। মূলত এখান থেকেই গল্পের শুরু। রেবেকা একদিন ঔষধ আনতে হারুন সাহেবের বাসায় যায়। সেখানে পরিচয় হয় হারুন সাহেবের বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছেলে অঙ্কুর এর সাথে।

অঙ্কুর রেবেকার একদম বিপরীত। রেবেকার গুটিয়ে চলা অঙ্কুরের কাছে অদ্ভুত মনে হয়। রেবেকার প্রতি তার আগ্রহ বাড়ে। সে রেবেকাকে নিয়ে এক আজব খেলায় মেতে ওঠে। রেবেকাকে চারপাশের হৈ হুল্লোড় দুনিয়া দেখাবে।

যে মেয়ে দিনে রাতে সকাল সন্ধ্যায় অঙ্কুরের পাগলামিতে মেতে ওঠে। রাতে টংয়ের দোকানে চা খায়। শহরের বাইরে নৌকার উপর চিত হয়ে শুয়ে থাকে। খালা খালু বিষয়টা জানতে পেরে তার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়। রেবেকাকে জানানো হয় তার বিয়ে ঠিক করা আছে খালুর এক ভাতিজা নঈমের সাথে। নঈমরা অনেক টাকার মালিক, ক্ষমতাধর পরিবার। রেবেকা খালা খালুর সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারে না। যে মুক্ত জীবনের স্বাদ সে পেয়েছে, তাকে পোষ মানানো কঠিন। কিন্তু খালা খালু তাকে জোর করেই বিয়ে দেবে। অঙ্কুরহীন জীবন রেবেকা কল্পনাও করতে পারে না। সে বেরিয়ে পড়ে। অঙ্কুরের খোঁজ কেউ বলতে পারে না। হারুন সাহেব শুধু কাঁদে। বাবা মাহীন রেবেকা একা হয়ে পড়ে। সে আর ঘরে ফিরতে চায় না। ঘর মানেই যেন অঙ্কুরহীনতা। বাইরের বিশ্বচরাচর যেন তার অঙ্কুর হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। মনে হয় অঙ্কুর যেন হুট করে এসে সারপ্রাইজ দেবে। রেবেকা দেখো, এই আমি। অঙ্কুরের খোঁজে রেবেকা হাঁটতেই থাকে।

নাটকটি প্রচারিত হবে ১৪ ফেব্রুয়ারি বুধবার রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে