সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে শিশুদের বায়না পূরণ করতে গিয়ে পাচারকারী হিসেবে হেনেস্তা: অতপর পুলিশ প্রটোকল



আসহাবুর ইসলাম শাওন,কমলগঞ্জ থেকে:: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চাচাতো ভাই শিশুদের বায়না মেটাতে গিয়ে শিশু পাচারকারী হিসাবে হেনাস্তার শিকার হয়েছেন। পরে ৫ শিশুসহ জনতা কর্তৃক ধৃত হয়ে পুলিশের হেফাজতে এসে সম্মানের সাথে ছাড়া পান।

জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চাচাতো ভাই গোপালগঞ্জের টঙ্গিপাড়ার মৃত শেখ মোশারফ হোসেনের ছেলে শেখ জাকির গত ২ দিন ধরে শ্রীমঙ্গল উপজেলায় অবস্থিত গ্রান্ড সুলতান নামক পাঁচতারকা হোটেলে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বেড়াতে আসেন।

কমলগঞ্জ থানা পুলিশের হেফাজতে থাকাবস্থায় আলাপকালে শেখ জাকির বলেন, ১২ জানুয়ারী শুক্রবার দুপুরে কমলগঞ্জের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান এলাকা ঘুরে মাধবপুর পরিদর্শনে যাওয়ার পথিমধ্যে কমলগঞ্জের বটেরতলা নামক স্থানে এসে প্রাকৃতিক দৃশ্য অবলোকন করছিলেন।

ঐ সময় বটতল এলাকার রাজু মিয়ার ছেলে সাইফ আহমেদ (১১),খোরশেদ মিয়ার ছেলে সাব্বির মিয়া (১৩), রফিক মিয়ার ছেলে কাজল মিয়া(১২),জসিম মিয়ার ছেলে রায়হান মিয়া (১১), আরিফ মিয়ার ছেলে জারিপ মিয়া (৭) এক পর্যায়ে আলাপচারিতার সুত্রে শেখ জাকিরের কাছে গাড়ী উঠতে বায়না ধরে।

শিশুদের আবদার ও বায়না রক্ষা করতে জাকির শিশুদেরকে গাড়ীতে তোলে শ্রীমঙ্গল নিয়ে যান। সেখানে শিশুদেরকে ভালো-ভালো খাবার খাইয়ে ও তাদের বায়না মতো ৭শ টাকা মূল্যের ১টি ক্রিকেট ব্যাট ক্রয় করে দিয়ে শিশুদেরকে বটতল নামক স্থানে দুপুর দেড়টায় পোঁছে দিতে গেলে স্থানীয় কতিপয় জনতা গাড়ীসহ জাকির ও শিশুদেরকে আটক করে কমলগঞ্জ থানা পুলিশে খবর দেয়।

খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানার ওসির নেতৃত্বে একদল পুলিশ বটতল এলাকা থেকে ৫ শিশু ও শেখ জাকির সহ গাড়ি আটক করে থানায় নিয়ে আসে। কমলগঞ্জ থানায় নিয়ে আসার পর পুলিশের জিঞ্জাসাবাদের এক পর্যায়ে শেখ জাকির পরিচয়দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাবার চাচাতো ভাই।

তাৎক্ষণিক অবস্থায় কমলগঞ্জ থানার ওসি মোক্তাদির হোসেন পিপিএম পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন। উর্দ্ধতন র্কমকর্তরা শেখ জাকিরের পরিচয় নিশ্চিত হয়ে কমলগঞ্জ থানার ওসি মোক্তাদির হোসেনকে শেখ জাকিরের পরিচয়ের বিষয়টি নিশ্চিতি করেন।

আলাপকালে কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোক্তাদির হেসেন বলেন,শেখ জাকিরের দেয়া পরিচয়ের সত্যতা নিশ্চিত ও শিশুদেরকে জিঞ্জাসাবাদে ঘটনার বর্ণানা শুনে, কমলগঞ্জ থানা পুলিশ শিশুদেরকে তাদের পিতা-মাতার হাতে হস্তান্তর সহ শেখ জাকিরকে পুলিশ প্রোটকলের মাধ্যমে গ্রান্ড সুলতানে নামক পাঁচতারকা হোটেলে পোঁছে দেয় বলে জানান।