সোমবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
রাজনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় সিলেটের আব্বাস, সুজেল ও সামাদ আহত  » «   সোহাদ রব চৌধুরীর ব্যাক্তিগত পক্ষ থেকে খেলার সামগ্রী বিতরণ  » «   সিলেটে ডুজি মোবাইল‘র যাত্রা শুরু  » «   ওয়ার্কার্স পার্টি জেলার উদ্যোগে কমরেড লেনিনের জন্মদিন পালন  » «   শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সাদা প্যানেলকে বিজয়ী করুন–আব্দুল বাসেত  » «   দিরাইয়ে হান্দুয়া বিলের ব্রিজ উদ্বোধনের আগেই ফাটল! ধ্বসে পড়ার আশংকা  » «   সিরিয়ায় ৫ হাজার ট্রাক অস্ত্র পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র!  » «   জগন্নাথপুরে গৃহবধুর আত্মহত্যা  » «   পুলিশ কাউকে হয়রানী করতে চায় না –অতি. ডিআইজি  » «   জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের বিক্ষোভ মিছিল  » «  

জগন্নাথপুরে মা-ছেলেকে মারপিট করে রাস্তা বন্ধ



জগন্নাথপুর প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে মা-ছেলেকে মারপিটের পর এবার বেড়া দিয়ে পথ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় চলাচলের রাস্তা না থাকায় একটি পরিবার জিম্মি হয়ে পড়েছে।
জানাগেছে, দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির জায়গা নিয়ে জগন্নাথপুর গ্রামের গাড়ি চালক বিকাশ রায় বিকু ও একই গ্রামের বিশ্ব রায় এবং প্রফুল্ল রায়ের লোকজনের মধ্যে বিরোধ ও মামলা-মোকদ্দমা চলছে।

এরই জের ধরে গত শনিবার প্রতিপক্ষের হামলায় গাড়ি চালক বিকাশ রায় বিকু ও তার বৃদ্ধা মা আহত হন। আহতদের জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা দেয়া হয়। এ ঘটনায় আহত গাড়ি চালক বিকাশ রায় বিকু বাদী হয়ে জগন্নাথপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের আলোকে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আসার পর বিকুর বাড়ির রাস্তা বাঁশের বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দেয় প্রতিপক্ষ।

বর্তমানের বিকুর পরিবারের লোকজন রাস্তা বন্ধ থাকায় বাড়ি থেকে বের হতে পারছে না। গত ৪ দিন ধরে তারা প্রায় জিম্মি অবস্থায় জীবন-যাপন করছেন। বুধবার সরজমিনে দেখা যায়, বাঁশের নতুন বেড়া দিয়ে বিকুর বাড়ির রাস্তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। যে কারণে বিকুর বাড়িতে যাওয়া সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে বিকাশ রায় বিকু জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে যাওয়ার পর প্রতিপক্ষের লোকজন বেড়া দিয়ে আমাদের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে। যে কারণে আমরা প্রায় জিম্মি অবস্থায় আছি। এ ব্যাপারে স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর ও জগন্নাথপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র শফিকুল হক জানান, বিকুর পরিবারের লোকদের মারপিট সহ নানা ভাবে হয়রানী করা হচ্ছে।