সোমবার, ১৬ জুলাই ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
সিলেট মেয়র প্রার্থীতার যাদু ! আত্ম-গোপন থেকে প্রকাশ্যে জামায়াত শিবির  » «   বিশ্বকাপে কে কোন পুরস্কার পেলেন…….  » «   কমলগঞ্জে এলজিইডি প্রকৌশলী ও অফিস সহকারীর বিদায় সংবর্ধনা  » «   নগরীর কাজিরবাজার থেকে তীর শিলং খেলার অভিযোগে ৭ জন আটক  » «   ফেঞ্চুগঞ্জে নৌকার বিশাল জনসভা  » «   ইতিহাস গড়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স  » «   সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক সংস্কারের দাবীতে অবরোধ সহ বিভিন্ন কর্মসূচির ডাক  » «   সৎ বাবা কর্তৃক দুই মাস ধরে দ্বিত্বীয় শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষিত : পাষন্ড আটক  » «   বিশ্বনাথে চেক ডিজঅনার মামলায় জাপা নেতার কারাদন্ড  » «   কামরানের নৌকার প্রতীকে বিজয়ী করতে ৯ মেয়রের গণসংযোগ  » «  

দফায় দফায় চলছে শাকিব-অপুর গোপন বৈঠক!



বিনোদন ডেস্ক: শাকিব-অপুর অধ্যায় এখনও শেষ হয়নি। নতুন নতুন খবরে চাপা পড়লেও কিছুদিন পরেই আবারও মুখ তুলে দাঁড়ায় আলোচিত এই জুটির সংবাদ। এবার নতুন খবর প্রকাশ করেছে গণমাধ্যম।

যেহেতু এখনও আনুষ্ঠানিক কোন কথাই বলেননি দুই তারকা তাই তাদের বিচ্ছেদ নিয়ে গণমাধ্যমের কৌতুহলের শেষ নেই। ভক্তদের মাঝেও গুঞ্জন ছড়িয়েছে অনেক। এক এক জনে বলছেন এক এক কথা।

যে মূহর্তে শাকিব খান ভারতে অবস্থান করছেন এবং কিছু দিনের মধ্যেই দেশে ফিরে আবারও নতুন সিনেমার জন্য পাড়ি জমাবেন অষ্ট্রেলিয়া ঠিক সেই সময় নতুন সংবাদ প্রকাশ পেয়েছে। জানা গেছে,অপু বিশ্বাসও নাকি জানতেন, শাকিব খানের সাথে কখনোই আর সংসার হবে না। তাই বিষয়টা নিস্পত্তির জন্য তালাকনামা পাঠানোর আগে দু’পক্ষের কাছের কয়েকজন, এমনকি দু’তিন জন বিনোদন সাংবাদিকের মধ্যস্থতায় গোপনে দফায় দফায় বৈঠক করা হয়।

কিন্তু অপু বিশ্বাসের মাত্রাতিরিক্ত দাবি-দাওয়ার কারণে কোনোরকম সুরাহা ছাড়াই অমিমাংসীত অবস্থাতেই বৈঠকের ইতি ঘটে। যতবারই বৈঠকে বসা হয়েছে ততবারই অপু দাবি করেছেন, তালাক দিলে ৫ কোটি টাকা দিতে হবে। কিন্তু শাকিব খান বরাবরই দেনমোহরে যা লেখা আছে, তার বেশি একটা টাকাও দেবে না বলে জানান।

মূলত দুজনের জেদাজেদির কারণেই সঠিক সমাধান করা সম্ভব হয়নি। ফলশ্রুতিতে ঘরোয়া সমাধানের আশা ছেড়ে দিয়ে আইনি প্রক্রিয়ায় অপু বিশ্বাসের বাসায় তালাকনামা পাঠান শাকিব খান।

উল্লেখ্য, সাংবাদিকদের কাছে অপু বিশ্বাস বিয়ের কাবিননামায় দেনমোহর হিসেবে ১ কোটি ৭ লাখ টাকার কথা উল্লেখ করলেও শাকিব খান জানান, দেনমোহর ছিল ৭ লাখ ১ টাকা। তবে শাকিবের তথ্যটিই সঠিক এবং নিশ্চিত বলে দাবি করেছেন শাকিবের ঘনিষ্টজনেরা।

২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিয়ে হয়। বিয়ের ব্যাপারটি কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে রেখে তাঁরা দুজন সমানতালে সিনেমার শুটিং অব্যাহত রাখেন। এ বছর ১০ এপ্রিল বিকেলে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ছয় মাস বয়সের ছেলে আব্রামকে সঙ্গে নিয়ে উপস্থিত হন অপু। সেদিন অপু বলেন, ‘আমি শাকিবের স্ত্রী, আমাদের ছেলে আছে।’

আট বছর আগের সে বিয়ের খবর জনসমক্ষে আসার পর দুজনের সম্পর্কের টানাপোড়েন তৈরি হয়। পরিস্থিতি এমন অবস্থায় পৌঁছায় যে শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস নিজেদের মধ্যে মুখ দেখাদেখি বন্ধ করে দেন। শুধু ছেলে আব্রামের কারণে মাঝেমধ্যে দেখা হলেও কথা হয়নি দুজনের। এবার তাঁদের সেই টানাপোড়েনের চূড়ান্ত পরিণতি ঘটেছে। শাকিব খান আর অপু বিশ্বাসের আনুষ্ঠানিকভাবে বিবাহবিচ্ছেদ ঘটছে।