বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
নিসচা মহানগরের সভাপতি ইকবাল’র জন্মদিন পালন  » «   ফলিক খানের অর্থায়নে প্রধানমন্ত্রীর মিটানো নাম নতুন করে অঙ্কন  » «   গোলাপগঞ্জে যুবদলের ৩৯তম প্রতিষ্টা বার্ষিকী পালন  » «   বিএনপি নেতা এম কে আনোয়ারের মৃত্যুতে সিলেট সরকারি কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের শোক  » «   জগন্নাথপুরে টাকা দেয়া হলেও চাল দেয়া হয়নি  » «   জগন্নাথপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ব্যবসায়ী মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে  » «   ২৬ নং ওয়ার্ড তালামীযের অভিষেক ও প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন  » «   সোশ্যাল মিডিয়ায় দুই নায়িকার মেকআপ রুমের ছবি ফাঁস!  » «   কমলগঞ্জে জাতীয় কন্যা শিশু দিবস পালিত  » «   জগন্নাথপুরে নুর আলীর খুনিদের ফাসির দাবিতে সোচ্চার এলাকাবাসী  » «  

রাতে স্বামীর সঙ্গে এই কাজটা করতে দারুণ মজা পান বিদ্যা



লাইফ স্টাইল:: বলিউডের নামকরা অভিনেত্রী বিদ্যা বালনের মুখে লাগাম নেই! যখন যা মনে হয়, তাই বলে ফেলেন! সরল, সহজ মেয়ে এই বিদ্যা। যা বলেন সোজাসাপটা।

তাই তো নিজের দাম্পত্য জীবনের গোপন ব্যাপারস্যাপার সর্বসমক্ষে চিৎকার করে বলতে পারেন।

২০১২-র ১৪ ডিসেম্বর সিদ্ধার্থ রায় কপূরের সঙ্গে বিয়ে হয়েছে বিদ্যার। বিয়ের পরেও চুটিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। হালে তাঁর ছবি ‘কহানি ২’ মুক্তি পেয়েছে। এ হেন বিদ্যা একবার স্টার গিল্ডের অ্যাওয়ার্ড প্রোগ্রামে গিয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন। সেই অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ছিলেন সালমান খান।

তিনিই মঞ্চে ডেকে নেন বিদ্যাকে। ‘পরিণীতা’র নায়িকা মঞ্চে আসতেই সলমন তাঁর স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে শুরু করেন, ‘আপনার সঙ্গে আমার কবে প্রথম দেখা হয়েছিল মনে আছে?’ লাজুক হেসে বিদ্যার জবাব, ‘হ্যাঁ, বেশ মনে আছে।’

সালমান বলে চলেন, ‘আমস্টারডামে প্রথম দেখা। আপনি ছিলেন। সঙ্গে ছিলেন আপনার বাবা।’ বিদ্যা হাসতে হাসতে বলেন, ‘আপনি বাবার সামনে একটা গানও করেছিলেন।’ সালমান সেই গানের দু’ কলি গেয়েও শোনান। উপস্থিত দর্শকরা তখন তো হেসে খুন। দর্শকদের তালিকায় উপস্থিত ছিলেন অনুষ্কা শর্মা, প্রিয়ঙ্কা চোপড়া-সহ আরও অনেকে। সামনের সারিতে বসে বিদ্যার স্বামী সিদ্ধার্থ রায় কপূর।

সালমান বিদ্যাকে অস্বস্তিতে ফেলে ফেলে প্রশ্ন ছুড়ে দেন, ‘বিদ্যা, বিয়ের পরে কেমন চলছে সব কিছু?’ অপ্রস্তুত হয়ে পড়ার মেয়েই নন তিনি। হেসে ফেলেন বিদ্যা। হাসতে হাসতেই সলমনের প্রশ্নের জবাবে বিদ্যা বলতে থাকেন, ‘বিয়ের পরে আমার যা পছন্দ, যেটা ভাল লাগে, তা আমি রাতেই করি…।’

কথা শেষ করেন না বিদ্যা। মাইক হাতে বিদ্যা যা বললেন, তাতে সবাই অবাক। সালমানেরও চোখ কপালে। দর্শক আসনে বসে থাকা অনুষ্কা অবাক হয়ে গিয়েছেন, মুখে হাত দিয়ে ফেলেছেন। প্রিয়ঙ্কার মাথা লজ্জায় হেঁট। স্বামী সিদ্ধার্থ চোয়াল শক্ত করে বসে রয়েছেন। আশঙ্কা করছেন, এই বুঝি বেফাঁস কিছু বলে ফেলেন বিদ্যা।

একটু নিঃশ্বাস নিয়ে, নিজেকে স্থির করে বিদ্যা বলতে শুরু করেন, ‘বিয়ের পরে আমার যা পছন্দ, যেটা ভাল লাগে, তা রাতেই করি। কারণ আমার স্বামী সিদ্ধার্থ রায় কপূর খুব সকালে অফিসে চলে যান। অফিস থেকে রাতে বাড়ি ফেরেন। আমরা দু’জনে রাতে একসঙ্গে ডিনার করি।’ বিদ্যার মুখে এই কথা শুনে সবাই তখন হাসিতে ফেটে পড়েছেন। সলমনও শুরু করে দিয়েছেন রসিকতা।

বলছেন, ‘একসঙ্গে খাবার খাওয়ার জন্য কেউ বিয়ে করে, এমনটা তো কখনও শুনিনি।’ বিদ্যা হাসছেন। হাসছেন সালমান। সেই সঙ্গে দর্শকরাও হাসিতে ফেটে পড়েছেন।