মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
নিসচা মহানগরের সভাপতি ইকবাল’র জন্মদিন পালন  » «   ফলিক খানের অর্থায়নে প্রধানমন্ত্রীর মিটানো নাম নতুন করে অঙ্কন  » «   গোলাপগঞ্জে যুবদলের ৩৯তম প্রতিষ্টা বার্ষিকী পালন  » «   বিএনপি নেতা এম কে আনোয়ারের মৃত্যুতে সিলেট সরকারি কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের শোক  » «   জগন্নাথপুরে টাকা দেয়া হলেও চাল দেয়া হয়নি  » «   জগন্নাথপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ব্যবসায়ী মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে  » «   ২৬ নং ওয়ার্ড তালামীযের অভিষেক ও প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন  » «   সোশ্যাল মিডিয়ায় দুই নায়িকার মেকআপ রুমের ছবি ফাঁস!  » «   কমলগঞ্জে জাতীয় কন্যা শিশু দিবস পালিত  » «   জগন্নাথপুরে নুর আলীর খুনিদের ফাসির দাবিতে সোচ্চার এলাকাবাসী  » «  

সৌদি বাদশাহ ও যুবরাজের প্রতিকৃতিতে গাজাবাসীর আগুন



আর্ন্তজাতিক ডেস্ক:: জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে আমেরিকার স্বীকৃতির প্রতিবাদে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার অধিবাসীরা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও সৌদি বাদশাহ সালমানের ছবিতে আগুন দিয়েছে।

ট্রাম্পের ঘোষণার প্রতিবাদ জানাতে রোববার ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী পপুলার ফ্রন্ট গাজা শহরে এক বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দেয়। মুসলমানদের প্রথম ক্বেবলাসমৃদ্ধ শহর জেরুসালেমের প্রতি অবমাননার প্রতিবাদ জানাতে হাজার হাজার গাজাবাসী বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেয়।

বিক্ষোভকারীরা মার্কিন ও ইসরাইলি পতাকার পাশাপাশি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতিকৃতিতে আগুন দেন। সেইসঙ্গে তারা সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুলআজিজ ও যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানের ছবিও আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেন।

ইহুদাবাদী ইসরাইল গোটা জেরুসালেম শহরকে নিজের রাজধানী বলে দাবি করে। অন্যদিকে ফিলিস্তিনিরা পূর্ব জেরুসালেমকে তাদের সম্ভাব্য রাষ্ট্রের রাজধানী হিসেবে দেখতে চায়।

গাজা উপত্যকায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভে পপুলার ফ্রন্টের শীর্ষস্থানীয় নেতা জামিল মাজহার বলেন, ‘আল-কুদস (জেরুসালেম) হচ্ছে ফিলিস্তিনের চিরন্তন রাজধানী এবং এই নগরীর এক ইঞ্চি ভূমিও ইসরাইলকে দেয়া হবে না।’

জেরুসালেমকে দখলদার ইসরাইলের রাজধানী করার মার্কিন ও ইহুদিবাদী প্রচেষ্টায় সৌদি আরবসহ আরো কিছু আরব দেশের ইন্ধন দেয়ার তীব্র নিন্দা জানান বিক্ষোভকারীরা। এ সময় তাদের হাতে ‘সৌদি রাজতন্ত্র ধ্বংস হোক’ লেখা প্ল্যাকার্ড শোভা পায়।

ইহুদিবাদী ইসরাইলের সাবেক অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা উপদেষ্টা ইয়াকোভ নাজেল গতমাসে বলেছেন, ‘তেল আবিবের সঙ্গে গোপন সম্পর্ক শক্তিশালী করতে চায় সৌদি আরব। এ কাজে রিয়াদ ফিলিস্তিনি জনগণের ন্যায়সঙ্গত অধিকার পদদলিত করতেও প্রস্তুত রয়েছে।’

ইসরাইলের সঙ্গে ম্যাচ বয়কট : কুস্তিগীরকে ইরানের সর্বোচ্চ নেতার আংটি উপহার
ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি অনূর্ধ্ব ২৩ দলের একজন কুস্তিগীরের ক্রীড়াসুলভ মনোভাব ও দেশের জন্য বড় রকমের ত্যাগের ঘটনায় ভূঁয়শী প্রশংসা করেছেন।

পোল্যান্ডে অনুষ্ঠিত কুস্তি প্রতিযোগিতায় আলী রেজা কারিমি নামের এ কুস্তিগীর ইহুদিবাদী ইসরাইলের এক প্রতিদ্বন্দ্বীর সঙ্গে খেলা বয়কট করার জন্য ইচ্ছা করে পরাজয় মেনে নেন। এরপর রোববার তিনি ও তার পরিবার সর্বোচ্চ নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে যান।

সাক্ষাতে সর্বোচ্চ নেতা রেজা কারিমিকে তার পুরস্কার মহান আল্লাহর কাছ থেকে পাওয়ার আশা করার পরামর্শ দেন। পাশাপাশি ইরানের কর্মকর্তারা তার প্রশংসা করতে ও বস্তুগত দিক দিয়ে পুরস্কৃত করতে কোনো রকমের প্রচেষ্টা বাদ দেবেন না বলে সর্বোচ্চ নেতা আশ্বস্ত করেন। সর্বোচ্চ নেতা বলেন, ‘আমাদের তরুণরা যে মহৎ লক্ষ্যে এমন নিশ্চিত চ্যাম্পিয়নশীপের অধিকার ত্যাগ করতে প্রস্তুত আপনি তা দেখিয়েছেন এবং এতে আমি সত্যিই গর্ব অনুভব করছি।’

এরপর সর্বোচ্চ নেতা তার নিজের একটি আংটি রেজা কারিমিকে উপহার দেন।

গত ২৬ নভেম্বর রেজা কারিমি রুশ প্রতিদ্বন্দ্বী আলী খান ঝাব্রাইলভকে ৩-২ পয়েন্টে পরাজিত করেন এবং দ্বিতীয় রাউন্ডে তার ইসরাইলের প্রতিদ্বন্দ্বী উরি কালাশনিকভের সঙ্গে খেলার কথা ছিল। কিন্তু ইহুদিবাদী ইসরাইলের খেলোয়াড়ের সঙ্গে খেলতে হবে বলে রেজা কারিমি নিজেই খেলা ছেড়ে দিয়ে ইচ্ছা করে পরাজয় স্বীকার করে নেন।

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান ইহুদিবাদী ইসরাইলকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকার করে না এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে কোনো প্রতিযোগিতায় ইসরাইলের সঙ্গে খেলা থেকে বিরত থাকে।