বুধবার, ১৮ জুলাই ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর

নবীগঞ্জ গজনাইপুর নমুশুদ্র গ্রামে যাতায়াতে জন্য রাস্তা নির্মাণ করে দিলেন- এমপি কেয়া চৌধুরী



আসমা জান্নাত মনি:: নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের দেওপাড়ায় গ্রামে নমশুত্রপাড়া প্রায় ৩শ মানুষের বসবাস। মানুষ আছে, বসত ভিটা আছে, কিন্তু তাদের চলাচলের জন্য নেই কোন রাস্তা।

দিনারপুর পরগনার উজানের পানিতে, সারা বছর তলীয়ে থাকা নিম্নাঞ্চল নমশুত্রপাড়া মানুষ; শীত-গরম সারা বছরই পানি ভেঙ্গে রাস্তায় যাতায়াত করত। কেউ মৃত্যুবরণ করলে, লাশ শ্মশানে নিতে গেলে বা গর্ভবর্তী কোন মা হাসপাতালে যেতে গেলে চরম দূর্ভোগে পরতে হত। যেন কেউ নেই এই দৃষ্ট দেখবার।
২০১৭ সালের জানুয়ারীতে এ গ্রামটি পরির্দশনকালে, নমশুত্রপাড়ার মানুষের এই দূর্ভোগ চোখে পরে এমপি কেয়া চৌধুরীর। তিনি (এমপি কেয়া চৌধুরী) তাৎক্ষনিকভাবে, মনশুদ্রপাড়ার মানুষের চলাফেরা জন্য একটি সড়ক নির্মাণের জন্য কাবিখা প্রকল্প হতে ৩ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেন। নমশুত্রপাড়ার পাড়ার বিশিষ্ট মুরব্বী বসু সরকারকে সভাপতি করে ড্রেন সহ মাটির সড়কটি নির্মাণ কার হয় স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের সহযোগিতায়।
২য় বারে মত দেওপাড়া গ্রামে নমশুত্রপাড়ায় এই সড়কটি কাজ পরির্দশন করতে গেলে, গ্রামের নারীরা ফুলের মালা পরিয়ে এমপি কেয়া চৌধুরীকে অর্ভ্যথনা জানান। নমশুত্রপাড়ার গৃহবধু শুকলা রানী বলেন, ‘কত নেতা আইছইন আর গেছইন, কত কথা হুনাইছইন, কিন্তু আমরার রাস্তা অইছেনা। কেয়া দিদি নিজে আইয়া রাস্তা দিয়া আমরার কষ্ট লাগভ করছইন’ রাস্তা দিছইন দেখিয়া আমার খুব খুশি। পরির্দশনকালে এমপি কেয়া চৌধুরী বলেন, নমশুত্রপাড়ার অবসিষ্ট সড়কটি সংষ্কারের জন্য আমি আরো ২ লক্ষ টাকার একটি বরাদ্দ দিয়েছি। দু’মাসের মধ্যে অর্থ ছাড় হলেই- এই সড়কের কাজ আবার শুরু হবে। ‘আওয়ামী লীগ সরকার গরীব মানুষের উন্নয়নে কাজ করে। আর এটাই তার প্রমান’। আনন্দঘন এ সময়ে আরো উপস্থিত ছিলেন গজনাইপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ আজমান আলী, সাধারন সম্পাদক মোঃ মাহমুদ আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক আলী নেওয়াজ গাজী, ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ছান্দালী, ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি তোয়াব উল্লাহ্, ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ আহমদ, আওয়মী লীগ নেতা নজরুল ইসলাম সহ নমশুত্রপাড়া বিশিষ্ট মুরব্বীয়ান ও এলাকার মা-বোনেরা