সোমবার, ২২ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
নিসচা মহানগরের সভাপতি ইকবাল’র জন্মদিন পালন  » «   ফলিক খানের অর্থায়নে প্রধানমন্ত্রীর মিটানো নাম নতুন করে অঙ্কন  » «   গোলাপগঞ্জে যুবদলের ৩৯তম প্রতিষ্টা বার্ষিকী পালন  » «   বিএনপি নেতা এম কে আনোয়ারের মৃত্যুতে সিলেট সরকারি কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের শোক  » «   জগন্নাথপুরে টাকা দেয়া হলেও চাল দেয়া হয়নি  » «   জগন্নাথপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ব্যবসায়ী মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে  » «   ২৬ নং ওয়ার্ড তালামীযের অভিষেক ও প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন  » «   সোশ্যাল মিডিয়ায় দুই নায়িকার মেকআপ রুমের ছবি ফাঁস!  » «   কমলগঞ্জে জাতীয় কন্যা শিশু দিবস পালিত  » «   জগন্নাথপুরে নুর আলীর খুনিদের ফাসির দাবিতে সোচ্চার এলাকাবাসী  » «  

প্রবাসীদের দুঃখে ভরা জীবন, হাসি মাখা মুখ : এই হাসিতেই বেঁচে থাকা



রুমেল আহমদ:: প্রবাসীদের প্রতিদিনের কষ্ট কাহিনী অনেকেই জানে না। বেশীর ভাগ সময় প্রবাসীরা নিজেই প্রকাশ করতে সাচ্ছন্দ বোধ করেন না। কারণ কষ্টের কথা, যন্ত্রণার কথা প্রকাশ করাও এক ধরনের কষ্ট।

প্রবাসীদের বুকের যন্ত্রণা প্রতিটি মূহুর্তে অন্তরে অন্তরে অবলীলায় প্রবাসীদের কাঁদিয়ে যায়। প্রবাসীদের চোখের জল চোখেই শুকায়, কেউ আদর করে মুছে দেয় না। বেঁচে থাকার জন্য, ভালো থাকার অভিনয় করে নিজেই নিজের সাথে ছলনা করে থাকেন।

দেশে পরিবার পরিজন যাহাতে ভালো থাকতে পারে এই চিন্তা মাথায় রেখেই তাদেরকে অভিনয় করে হলেও সুখের হাসি হেসে বলতে হয় ‘আমি ভালো আছি মা, ভালো আছি বাবা’।

একজন প্রবাসী আরো একজন প্রবাসীর সাথে যেভাবে জীবনের দুঃখ যন্ত্রণা ভাগাভাগি করে আপন পরিবার
পরিজনের সাথে এই ভাবে প্রাণ খোলে কথা বলতে পারে না। কারণ মাত্র একটা “দেশে রেখে আসা মানুষগুলো সুখে থাকুক। কোনো প্রবাসীর কষ্ট যেন ওদেরকে স্পর্শ করতে না পারে।” দেশের মানুষ শুধুই প্রবাসীদের সুন্দর সাস্থ্য আর হাসি মাখা মুখটাই দেখে। তাই আসল সত্যটা হাসি আর চোখে দেখা সুখের আবরনে ঢাকা পড়ে যায়। আর এক ধরনের ভূ্ল ধারনা বদ্ধমূ্ল হয়।

তির্থের কাকের মত আশায় চেয়ে থাকা প্রবাসী জীবনের এক একটি দিন যা কাউকে সহজে বুঝাতে পারে না। প্রবাসে টাকা আছে তবে সুখ যে নেই তা বিশ্বাসযোগ্য নয়। সবার ধারণা প্রবাস মানেই হলো সুখ আর সুখ। বাস্তব সত্য হলো প্রবাসীরা নামে মাত্র শুধু বেঁচে থাকেন। বেঁচে থাকার স্বাদ তাদের ভাগ্যে নেই। ভালোবাসাহীন জীবন নিয়ে বুক ভরা কষ্টের পাহাড় নিয়ে সুখের আশেপাশেও যাবার ভাগ্য হয় না প্রবাসীদের। মাঝে মাঝে মনে হয় প্রবাসীরা বেঁচে থাকার নামে বেঁচে আছেন জিন্দা লাশ হয়ে। প্রবাসীরা এক একটা জিন্দা লাশ।

যে সুখের আশায় রক্ত বাঁধনের মানুষ গুলোকে পিছনে রেখে একদূর পথপাড়ি দেন প্রবাসীরা। কিন্তু সুখের মুখ দেখা হয় না। বুক ভরা শুন্যতার শুন্যস্থান সঠিক ভাবে পুর্ণ হয় না। কষ্ট আর হা-হা-কার বুকে নিয়ে সুখের আশায় বৃথা এই দৌড় ঝাঁপ দিতে দিতেই প্রবাসীদের জীবনের প্রদীপ নিভে যায়।

আবার প্রবাসে কিছু মানুষ আছে যারা সবার মত অসুখী নয়। তাদের টাকাপয়সা সবই আছে। তবে ওরা সংখ্যায় খুবই কম। ওদের কথা আলাদা। আবার এই সুখীমানুষের অসুখের কাহিনীরও শেষ নেই। টাকা পয়সা সব সময় অসুখীর মূল বষ্য নয়। জীবনে টাকার প্রয়োজন তা আমি অস্বীকার করব না। জীবনে টাকার প্রয়োজন আছে।

জীবনকে সুন্দর ভাবে সাজাতে হলে টাকা অগ্রণী ভূমিকা পালন করে থাকে। টাকা যে আবার সব সমস্যার সমাধান তাও স্বীকার করব না। যেখানে মানুষের প্রয়োজন সেখানে টাকা একেবারে অর্থহীন হয়ে যায়। জীবনে সুখী হবার জন্য হিসাবের কিছু বিষয় আছে প্রবাসীদের জ়ীবনে প্রতিফলিত না হলে প্রবাসীরা সুখের মুখ দেখতে পাই না। প্রবাসীরা কোন সময় পরিপূর্ণ সুখী হবার স্বপ্ন দেখেন না।