বৃহস্পতিবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
১২ মাস ভিজিএফ’র চাল ও নগদ অর্থ বিতরণ করে প্রমাণ হয়েছে এ সরকার কৃষি বান্ধব  » «   লন্ডন সিলেট ফ্রেন্ডশীপ অর্গানাইজেশনের মুকিত কে সংবর্ধনা  » «   মৌলভীবাজারে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করলো ছেলে  » «   নগরী থেকে রবিউল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি নিখোঁজ  » «   জ্ঞানের রাজ্যে ভ্রমণের জন্য তো কোনো পাসর্পোট ভিসা লাগেনা–প্রণবকান্তি দেব  » «   কৃষি জমি রক্ষার দাবীতে ফতেহপুরবাসীর প্রতিবাদ সভা  » «   ‘কোটা পদ্ধতি তুলে নেয়ার এখতিয়ার প্রধানমন্ত্রীর নেই’ –মির্জা ফখরুল  » «   ‘বঙ্গভূম’ অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন  » «   আসিফা ধর্ষণ ও হত্যা নিয়ে সরব হলেন আলিয়া ভাট  » «   নূপুর বেতার ক্লাবের লোক উৎসব শুক্রবার  » «  

ত্বকের উজ্জ্বলতায় কাঁচা দুধের ব্যবহার



52লাইফ স্টাইল:: রুপচর্চার সাথে সেই প্রাচীনকাল থেকে যে উপাদানটির নাম জড়িয়ে আছে, সেটি হচ্ছে দুধ। আর আমাদের দেশে কোনো বিশেষ অনুষ্ঠানে যেমন কনে দেখা, গাঁয়ে হলুদ এসকল অনুষ্ঠানে মেয়েদের কাঁচা দুধ দিয়ে গোসল করানো হয়। বা বিয়ের কিছুদিন আগে থেকেই কনের রুপচর্চায় কাঁচা দুধ ব্যবহার করা হয়। কারণ কাঁচা দুধে থাকা বিভিন্ন উপাদান ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে দারুণ কাজ করে।
এখন সময় আর বিয়েতে আটকে নেই। সব নারীকেই সব সময় তৈরি হয়ে থাকতে হয়। তাই আপনার রোজকার রুপচর্চায় কিভাবে কাঁচা দুধ ব্যবহার করবেন, আজ আমরা তাই জানাচ্ছি। তাহলে আসুন জেনে নিই কাঁচা দুধের তৈরি কিছু ফেসপ্যাক ও এর কার্যকারিতা সম্পর্কে।
কাঁচা দুধ, বেসন ও মুলতানি মাটি :
একটি পাত্রে ১ চা চামচ বেসন, ১ চা চামচ মুলতানি মাটি ও ২ টেবিল চামচ কাঁচা দুধ ভালো করে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এবার হাতে অল্প পানি নিয়ে মুখে আলতো করে ম্যাসাজ করতে হবে। এতে করে মুখের ত্বকের গভীর থেকে ময়লা উঠে আসবে। এবার মুখ ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। এই প্যাকটি তৈলাক্ত ত্বকের জন্য বেশি উপকারী। কাঁচা দুধের ল্যাকটিক এসিড প্রাকৃতিক ব্লিচের কাজ করে। বেসন ও মুলতানি মাটি ত্বকের তৈলাক্ততা দূর করে এবং সেই সাথে ত্বককে গভীর থেকে পরিস্কার করে।

কলা ও দুধ :
এই প্যাকটির জন্য অর্ধেক পাঁকা কলা খুব ভালোভাবে ম্যাশ করে এর সাথে পরিমাণ মতো (প্রায় ২ চা চামচ) কাঁচা দুধ অল্প অল্প করে মিশিয়ে একটি থকথকে মিশ্রণ বানাতে হবে। এরপর প্যাকটি মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। এই প্যাকটি ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির সাথে সাথে ত্বককে ময়েশ্চারাইজও করে। এজন্য মুখ ধোয়ার পর মুখে আলাদা করে ময়েশ্চারাইজার লাগানোর প্রয়োজন নেই।
কাঁচা দুধ, পেঁপে ও মধু :
দুই টুকরো পাঁকা পেঁপে খুব ভালো করে ম্যাশ করে নিতে হবে। এর সাথে দুই চা চামচ কাঁচা দুধ ও ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে রাখতে হবে ১৫ মিনিট। এরপর মুখ ভালো করে ধুয়ে ফেলতে হবে। এই প্যাকটি বয়স্কদের ত্বকের জন্য বেশ কার্যকর। যাদের ত্বকে হালকা রিংকেল পড়ে গেছে তারা এই প্যাকটি থেকে অনেক উপকার পাবেন।

কাঁচা দুধ, মধু ও লেবুর রস :
দুই চা চামচ কাঁচা দুধের সাথে এক চা চামচ মধু ও এক চা চামচ লেবুর রস ভালো করে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখতে হবে ১৫ থেকে ২০ মিনিট। এরপর পানি দিয়ে ভাল করে মুখ ধুয়ে নিতে হবে।
মধু ও লেবুর রসের সাথে কাঁচা দুধ মেশালে এটি প্রাকৃতিক ব্লিচ হিসেবে কাজ করে, যা কোন ধরনের ক্ষতি ছাড়াই ত্বকের রঙ হালকা করতে সাহায্য করবে।
শুধুই কাঁচা দুধ :
অনেক কিছু জোগার করাটা ঝামেলা মনে হলে আপনি শুধু কাঁচা দুধ ব্যবহার করতে পারেন। শুধু কাঁচা দুধ হাতে নিয়ে মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। নিয়মিত ব্যবহারে আস্তে আস্তে ত্বক অনেক উজ্জ্বল হয়ে যাবে।