মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সোনার বাংলা গড়ার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের মানুষ নিজেরাই নিজেদের পায়ে দাঁড়াবে —  সজীব ওয়াজেদ জয়



14690936_10154053232684537_4171182584435406267_nসোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ‘আইটি-কাম প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে 

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য-প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়  বলেন, ‘আমাদের আওয়ামী লীগ সরকারের যে স্বপ্ন; জাতির জনকের স্বপ্ন ছিল একটি সোনার বাংলা গড়ে তোলা। সোনার বাংলার অর্থটা কি, স্বপ্নটা কি? সেটা হচ্ছে বাংলাদেশের সকল মানুষ নিজের পায়ে দাঁড়াবে।’

তিনি বলেন, ‘অন্য কোন দেশ বা অন্যকোন জাতির উপর আমরা নির্ভরশীল হব না। আমরা নিজেদের মেধায়, নিজেদের পরিশ্রমে, আমরা নিজেদের উন্নয়ন করবো।’

সেই উদ্দেশে এ ধরনের প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট গড়ে তোলা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরিকল্পনায় আওয়ামী লীগ সরকার দেশের মানুষকে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর সুযোগটা করে দিচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রীর কাযালয়ের অধীনে পার্বত্য চট্টগ্রামের বাইরে দেশের অন্যান্য এলাকায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর মানুষের জীবন-মানের উন্নয়নে যে কর্মসূচি বাস্তবায়নাধীন রয়েছে তারই আওতায় রায়গঞ্জে এ প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট গড়ে তোলা হয়েছে।

জয় বলেন, ‘আমরা গুরুত্ব দিয়েছি শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের উপর। তার প্রতীক এই প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট উদ্বোধন করতে পেরে আমি গর্বিত।’

এ ধরনের ইন্সটিটিউটে প্রশিক্ষণ নিয়ে মানুষ নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারবে, আয় বাড়বে এবং ব্যক্তিগত ও পারিবারিক জীবনে পরিবর্তন আসবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। রায়গঞ্জের এ প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটে বাংলাদেশ কারিগরি বোডের্র কারিকুলাম অনুযায়ী তথ্য-প্রযুক্তির ওপড় বিভিন্ন প্রশিক্ষণ ছাড়াও বিজিএমইএ ও অর্থ মন্ত্রণালয় এর এসইআইপি কর্মসূচির সহায়তার সেলাই প্রশিক্ষণ, আইএলওর সহায়তায় অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের মালিক ও শ্রমিকদের প্রশিক্ষণ এবং তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের আওতাধীন একটি প্রকল্পের অধীনে ১৬০ ঘন্টা কম্পিউটার ফাউন্ডেশন প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এটুআই প্রকল্পের পরিচালক কবীর বিন আনোয়ার।