রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
চারখাই ত্রিমুখে ‘শহীদ নাহিদ চত্বর’র উদ্বোধন করলেন শিক্ষামন্ত্রী  » «   কমলগঞ্জের ধলই চা বাগানে মস্তকবিহিন নারীর লাশ উদ্ধার  » «   ওসমানীনগরে বাস চাপায় নিহত ২ : আহত ২  » «   হাউজিং এস্টেট এসোসিয়েশনের ৫০ বছর পূতি উপলক্ষে প্রথম সভা অনুষ্ঠিত  » «   জগন্নাথপুর পৌর পয়েন্টে ট্রাফিক চত্বর জরুরী  » «   সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে ক্লাস বর্জন ও মানববন্ধন পালিত  » «   সিলেটের চেঙ্গেরখাল নদীসহ বিভিন্ন নদ-নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ করার দাবিতে প্রতিবাদ বন্ধন  » «   ইরানের সামরিক কুচকাওয়াজে হামলায় ৮ সেনা নিহত  » «   সন্ত্রাসী হামলায় আহত এসপিআই শিক্ষার্থী নাঈম  » «   ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কোতোয়ালী থানার প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত  » «  

বখাটের হামলায় আহত নার্গিসের পাশে সাবেক মেয়র কামরান



vyyস্টাফ রিপোর্টার : এম সি কলেজে বখাটের হামলায় গুরুতর আহত খাদিজা বেগম নার্গিসকে  দেখতে সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে  যান সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। এসময় তিনি চিকিৎসকদের সাথে কথা বলেন ও তার চিকিৎসার খোজ খবর নেন। হাসপাতালে থাকা ছাত্রীর আত্মীয়-স্বজন বদর উদ্দিন আহমদ কামরান কে কাছে পেয়ে তাকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেংগে পড়েন এবং আবেগআপ্লুত কণ্ঠে দোষীদের বিচার চান। পরে সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি বলেন প্রকৃত দোষীকে খুব তাড়াতাড়ি আইনের আওতায় আনা হবে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের উধ’তন কতৃপক্ষের সাথে কথা হয়েছে বলেও জানান তিনি।
উল্লেখ, সিলেট এমসি কলেজে সন্ত্রাসী হামলায় গুরুতর আহত হন সিলেট সরকারী মহিলা কলেজের ডিগ্রী ২য় বর্ষ ফাইনাল পরীক্ষার্থী (২২)খাদিজা বেগম নার্গিস। সে সিলেটের জালালাবাদ থানার আউশা গ্রামের মাসুক মিয়ার মেয়ে।
জানা যায়, সোমবার বিকাল সাড়ে ৫টায় এমসি কলেজের পুকুরপাড়ে শাহাজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র বদরুল ইসলাম নার্গিসের শরীরের বিভিন্ন স্থানে চুরিকাঘাত করে।
সে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে আশপাশের লোকজন ধরে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। সে বর্তমানে ওসমানী মেডিকেল ৩য় তলায় পুলিশের হাতে আটক অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছে। আটককৃত বদরুল ছাতক উপজেলার মুনিরজ্ঞাতি গ্রামের বলে জানা যায়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নার্গিসের সাথে থাকা আরেক মেয়ে ওসমানী মেডিকেলে সাংবাদিকদের জানান, তিনি নিজে ঘটনাস্থলে ছিলেন। ঘটনার দৃশ্যটি মোবাইলে ভিডিও ধারণ করেছেন। কয়েকজন ছেলে এ ঘটনার সাথে জড়িত আছে বলে তিনি অবগত করেন।