সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
ফলিক খানের অর্থায়নে প্রধানমন্ত্রীর মিটানো নাম নতুন করে অঙ্কন  » «   গোলাপগঞ্জে যুবদলের ৩৯তম প্রতিষ্টা বার্ষিকী পালন  » «   বিএনপি নেতা এম কে আনোয়ারের মৃত্যুতে সিলেট সরকারি কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের শোক  » «   জগন্নাথপুরে টাকা দেয়া হলেও চাল দেয়া হয়নি  » «   জগন্নাথপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ব্যবসায়ী মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে  » «   ২৬ নং ওয়ার্ড তালামীযের অভিষেক ও প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন  » «   সোশ্যাল মিডিয়ায় দুই নায়িকার মেকআপ রুমের ছবি ফাঁস!  » «   কমলগঞ্জে জাতীয় কন্যা শিশু দিবস পালিত  » «   জগন্নাথপুরে নুর আলীর খুনিদের ফাসির দাবিতে সোচ্চার এলাকাবাসী  » «   জগন্নাথপুরে সাংবাদিক কলির দাদীর মৃত্যুতে প্রেসক্লাবের শোক প্রকাশ  » «  

বখাটের হামলায় আহত নার্গিসের পাশে সাবেক মেয়র কামরান



vyyস্টাফ রিপোর্টার : এম সি কলেজে বখাটের হামলায় গুরুতর আহত খাদিজা বেগম নার্গিসকে  দেখতে সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে  যান সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। এসময় তিনি চিকিৎসকদের সাথে কথা বলেন ও তার চিকিৎসার খোজ খবর নেন। হাসপাতালে থাকা ছাত্রীর আত্মীয়-স্বজন বদর উদ্দিন আহমদ কামরান কে কাছে পেয়ে তাকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেংগে পড়েন এবং আবেগআপ্লুত কণ্ঠে দোষীদের বিচার চান। পরে সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি বলেন প্রকৃত দোষীকে খুব তাড়াতাড়ি আইনের আওতায় আনা হবে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের উধ’তন কতৃপক্ষের সাথে কথা হয়েছে বলেও জানান তিনি।
উল্লেখ, সিলেট এমসি কলেজে সন্ত্রাসী হামলায় গুরুতর আহত হন সিলেট সরকারী মহিলা কলেজের ডিগ্রী ২য় বর্ষ ফাইনাল পরীক্ষার্থী (২২)খাদিজা বেগম নার্গিস। সে সিলেটের জালালাবাদ থানার আউশা গ্রামের মাসুক মিয়ার মেয়ে।
জানা যায়, সোমবার বিকাল সাড়ে ৫টায় এমসি কলেজের পুকুরপাড়ে শাহাজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র বদরুল ইসলাম নার্গিসের শরীরের বিভিন্ন স্থানে চুরিকাঘাত করে।
সে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে আশপাশের লোকজন ধরে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। সে বর্তমানে ওসমানী মেডিকেল ৩য় তলায় পুলিশের হাতে আটক অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছে। আটককৃত বদরুল ছাতক উপজেলার মুনিরজ্ঞাতি গ্রামের বলে জানা যায়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নার্গিসের সাথে থাকা আরেক মেয়ে ওসমানী মেডিকেলে সাংবাদিকদের জানান, তিনি নিজে ঘটনাস্থলে ছিলেন। ঘটনার দৃশ্যটি মোবাইলে ভিডিও ধারণ করেছেন। কয়েকজন ছেলে এ ঘটনার সাথে জড়িত আছে বলে তিনি অবগত করেন।