বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ঐতিহাসিক বদর দিবস উদযাপন



1হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ হযরত মাওলানা আবু সালেহ মোহাম্মদ কুতবুল আলম বলেছেন, ইসলামকে রক্ষার জন্য এক ঝাক সোনালী মানুষ নবী (স.) এর সাথী হয়ে ঐতিহাসিক বদর নামক স্থানে গিয়ে যে ত্যাগ করেছেন তা স্বর্ণাক্ষরে ক্বিয়ামত পর্যন্ত ইতিহাসের পাতায় লিখা থাকবে। ৩১৩ জন সাহাবী নিয়ে সহস্্রাধিক কাফের মুশরিকদের বিরুদ্ধে মোকাবেলা তাদের না ছিলো অস্ত্র না ছিলো জনবল কিন্তু তাদের ইমান ও আক্বিদা ছিলো পুরোপুরি মজবুত। তাদের বিশ্বাস ছিলো আল্লাহর দ্বীনে রক্ষায় তারা এ যুদ্ধ করছেন। অবশ্যই আল্লাহপাক তাদের কে সাহায্য করবেন আর হয়ে ছিলোও তাই। আল্লাহ পাক পবিত্র কালামের মাধ্যমে প্রকাশ্য সাহায্যের ঘোষনা দিয়েছিলেন। দারুল ক্বিরাত মজিদিয়া ফুলতলী টাস্ট হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদ্রাসা শাখা আয়োজিত ঐতিহাসিক বদর দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা গুলো বলেন।
৫ জুলাই রোববার নগরীর সোবনীঘাটস্থ মাদ্রাসার হল রুমে আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (রহ.) এর প্রতিষ্ঠিত দারুল ক্বিরাত মজিদিয়া ফুলতলী টাস্ট মাদ্রাসা শাখার উদ্যোগে ঐতিহাসিক বদর দিবস উদযাপন উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদ্রাসা শাখার সহকারী নাজিম মাওলানা জইন উদ্দিন এর সভাপতিত্বে ও শাখা সহকারী মারুফ আহমদ এর পরিচালনায় সভায় বদর দিবসের তাৎপর্য সম্পর্কে আলোচনা পেশ করেন অত্র শাখার ক্বারী মাওলানা আব্দুল আহাদ জিহাদী। উপস্থিত ছিলেন অত্র শাখার সহকারী মাওলানা শাবির আহমদ, মাওলানা নুর উদ্দিন, মাওলানা জামাল উদ্দিন, মাওলানা ইমদাদুল হক, মাওলানা ছালিম আহমদ, হাফিজ বিলাল আহমদ, হাফিজ রায়হান আহমদ, লবীব উদ্দিন, আব্দুল আজিজ ফারহান, আব্দুল আজীজ লতিফী, রুম্মান আহমদ রাইয়্যান আহমদ প্রমুখ।