শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০ ২০
খেলাধুলা ডেস্ক
২০ ফেব্রুয়ারী ২০ ২০
৯:৫৫ অপরাহ্ণ
নারীঘটিত কেলেঙ্কারিতে জড়ালেন পাকিস্তানের তরুণ ক্রিকেটার শাদাব খান

নারীঘটিত কেলেঙ্কারিতে জড়ালেন পাকিস্তানের তরুণ ক্রিকেটার শাদাব খান। তার বিরুদ্ধে প্রেম-প্রতারণার অভিযোগ এনেছেন দুবাইয়ের এক তরুণী। তার নাম আশরিনা সাফিয়া। ওই তরুণীর অভিযোগ, শাদাবের জন্য বিভিন্ন দেশে গেছে। তার অন্তরঙ্গ মুহুর্ত কাটিয়েছেন, শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে। যার ছবি রয়েছে শাদাবের কাছে, যে ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশের হুমকি দিয়ে তাকে এ ব্যাপারে মুখ খুলতে নিষেধ করছে। দুবাই তরুণীর অভিযোগ, শুধু তার সঙ্গেই নয়, একাধিক নারীর সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে শাদাবের। তার সঙ্গে অন্তরঙ্গ সময় কাটানোর পর ওইসব নারীদের কাছে ছুটে যেতেন তিনি।
গত শনিবার এসব নিজের ইনস্টাগ্রামে দীর্ঘ পোস্ট দিয়ে এসব অভিযোগ এনেছেন সাফিয়া। বলছেন, ওইসব নারীদের সতর্ক করতেই তার এ পোস্ট।  

চলতি সপ্তাহেই মাঠে গড়াচ্ছে পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল)। ইসলামাবাদ ইউনাইটেডকে নেতৃত্ব দিতে যাচ্ছেন শাদাব খান। তার আগেই সংবাদের শিরোনাম হয়ে বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন দলের সবচেয়ে এই তরুণ ক্রিকেটার।

সাফিয়ার দাবি, শাদাবের সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল, যা কেউই জানত না। যদিও শাদাবের কাছাকাছি থাকার জন্য শাদাব যেসব দেশে ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লীগ খেলেন, সেসব দেশে সাফিয়াও গেছেন। পরে তাদের নিয়ে এক পাকিস্তানি সাংবাদিক প্রতিবেদন প্রকাশ করলে সবাই জেনে যায়। আর তখনই বেঁকে বসেন শাদাব। এরপর থেকেই মুখ বন্ধ রাখতে আশরিনা সাফিয়াকে হুমকি দিতে থাকেন তিনি।

তরুণী জানিয়েছে, শাদাবের কাছে তার যত নগ্ন ছবি আছে, সব ফাঁস করার হুমকি দিয়েছেন। তিনি বলেন, শাদাব খান ও আমার সম্পর্ক নিয়ে অনেকে অনেক কিছুই বলছে, যা আমি ও আমার পরিবারের ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলছে। এতদিন এসব পাত্তা দিইনি। শাদাবের সঙ্গে আমার পরিচয় ২০১৯ সালের মার্চে। আমাদের সম্পর্ক আরও গভীর হয় লন্ডনে অনুষ্ঠিত ক্রিকেট বিশ্বকাপের সময়।

সাফিয়ার দাবি, পনেরো হাজার আমেরিকান ডলার খরচ করে উড়োজাহাজে করে বিভিন্ন দেশে গিয়েছি শুধু শাদাব যেসব টি-টোয়েন্টি লিগে খেলে সেখানে ওর খেলা দেখার জন্য, ওর সঙ্গে থাকার জন্য, সিপিএল গায়ানা, বাংলাদেশ ও দুবাই। প্রত্যেকবার ও আমার সঙ্গে থাকার পর অন্য মেয়ের কাছে চলে যেত। আমি শাদাবকে সব সময় বিশ্বাস করেছি কেননা আমি ওকে যতই দোষ দিই না কেন ও আমাকে ওর কাছে রাখার জন্য এমন কিছু নেই যা করেনি। কিন্তু একজন পাকিস্তানি সাংবাদিক আমাদের নিয়ে একটা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এরপর থেকেই শাদাব আমাকে হুমকি দিচ্ছে বিভিন্ন নম্বর থেকে এই বলে যে, আমি যদি আমাদের সম্পর্কের কথা প্রকাশ করি তাহলে সেও ওর কাছে থাকা আমার সব নগ্ন ছবি ফাঁস করে দেবে।

Related Posts