বুধবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ২ ১৪২৬   ১৮ মুহররম ১৪৪১

১৯৭

লন্ডনে দারুল হাদীস লাতিফিয়ার গ্রাজুয়েশন ও ৪০বর্ষ পূর্তি 

৩২ জন ছাত্রের পাগড়ী লাভ

প্রকাশিত: ৩ জুলাই ২০১৯ ১৮ ০৬ ৪০  

ডেস্ক নিউজ:: শামসুল উলামা আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (রহ.) প্রতিষ্ঠিত বৃটেনের ঐতিহ্যবাহী ইসলামিক প্রতিষ্ঠান দারুল হাদীস লাতিফিয়ার গ্রাজুয়েশন, ৪০ বর্ষ পূর্তি ও ডিনার অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয় ১লা জুলাই সোমবার ইস্ট লন্ডনের স্থানীয় একটি ব্যানকুইটিং হলে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কামিল (টাইটেল) উত্তীর্ণ ছাত্রদের মাথায় পাগড়ী পরিয়ে হাতে সনদ তুলে দেন মাদ্রাসার ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান শায়খুল হাদীস হযরত আল্লামা ইমাদ উদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শায়খুল হাদীস হযরত আল্লামা হবিবুর রহমান, বেথনালগ্রীন ও বো আসনের এমপি রোশনারা আলী এমপি, টাওয়ার হ্যামল্যাট্স এর নির্বাহী মেয়র জন বিগস, ডেপুটি মেয়র জনাব সিরাজুল ইসলাম, বিশ্বনাথ-বালাগঞ্জ এর সাবেক এমপি জনাব শফিকুর রহমান চৌধুরী, হযরত আল্লামা মোজাহীদ উদ্দীন চৌধুরী দুবাগী, মুসলিম হ্যান্ডস বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার মাওলানা গুফরান আহমদ চৌধুরী, মাদ্রাসার গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান হযরত আল্লামা হাফিজ আব্দুল জলিল, ট্রাস্টি বোর্ড এর সদস্য আলহাজ্জ বশির উদ্দীন আহমদ, দারুল হাদীস লাতিফিয়া নর্থওয়েস্ট এর প্রিন্সিপাল মাওলানা সালমান আহমদ চৌধুরী প্রমুখ।

দারুল হাদীস লাতিফিয়ার প্রিন্সিপাল মাওলানা মুহাম্মদ হাসান চৌধুরী ফুলতলীর সার্বিক তত্বাবধানে অনুষ্ঠানে কামিল (টাইটেল) উত্তীর্ণ ৩০ জন ও হিফজ সম্পাদনকারী ২ জন ছাত্র পাগড়ী ও সনদ লাভ করেন।

মাওলানা ফরিদ আহমদ চৌধুরী ও মাওলানা মারুফ আহমদ এর যৌথ পরিচালনায় দুই পর্বের এই অনুষ্ঠানে মাদ্রাসার পেট্রনদের হাতে সনদও তুলে দেয়া হয়। প্রায় শতাধিক পেট্রন মাদ্রাসার প্রতি তাদের অকৃত্রিম সহযোগিতার জন্য প্রধান অতিথি হযরত আল্লামা ইমাদ উদ্দীন চৌধুরী ফুলতলীর কাছ থেকে এই সনদ গ্রহণ করেন। মাদ্রাসার বিগত বছরের সাফল্য ও ইতিহাস তুলে ধরে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন ও ভিডিও ডকুমেন্টারি দর্শকদের সামনে তুলে ধরেন মাদ্রাসার এসিস্ট্যান্ট প্রিন্সিপাল মাওলানা মুশাররফ হোসাইন ইমরান।

প্রধান অতিথির নসীহতমূলক বক্তব্যে হযরত আল্লামা ইমাদ উদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী বলেন, আজকে যারা কামিল পাশ করে পাগড়ী লাভ করলেন তারা কতইনা সৌভাগ্যবান। এই পাগড়ীর মর্যাদা তাদেরকে রক্ষা করে চলতে হবে। কুরআন ও হাদীস শরীফ থেকে যে শিক্ষা তারা লাভ করেছেন, তা অন্যের কাছে পৌঁছে দিতে হবে। হাদীসের একজন খাদিম হিসেবে নিজেকে নিয়োজিত করে ফিতনা-ফাসাদের এই যুগে তাদেরকে ইসলামের সঠিক-সুন্দর রূপ ব্রিটেন ও ইউরোপীয় সমাজে তুলে ধরতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শায়খুল হাদীস হযরত আল্লামা হবিবুর রহমান বলেন, হাদীসের সনদের সাথে যারা নিজেদেরকে আজ সম্পৃক্ত করলেন, এটা খুবই বড় প্রাপ্তি। এর মাধ্যমে আল্লাহর রাসূল (সা.) এর সাথে নিজের সম্পর্ক সুদৃঢ় করার পথ উন্মুক্ত হয়। আজকের এই দিনে উপস্থিত থাকলে সবচেয়ে বেশী যিনি খুশী হতেন তিনি হলেন এই মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা আমাদের পীর ও মুর্শিদ হযরত আল্লামা ছাহেব কিবলাহ ফুলতলী (রহ.)। তাঁর হাতে রোপন করা বাগানে আজ ফুল ফুটতে শুরু করেছে। সেই ফুলের সৌরভ বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়বে, সমাজ ও দেশকে আলোকিত-সুরভিত করবে এটা আমাদের বিশ্বাস। আল্লাহ তায়ালা তাদেরকে তাঁর দ্বীনের খাদিম হিসেবে কবুল করুন।
বেথনালগ্রীন ও বো আসনের এমপি রোশনারা আলী বলেন, এ রকম ঐতিহ্যবাহী একটি প্রতিষ্ঠান আমার নির্বাচনী এলাকাতে হওয়াতে আমি খুবই গর্বিত। স্কুলের অর্জন সমাজ ও উন্নয়নে তাদের ভূমিকা আমাকে মুগ্ধ করেছে। আমি আশা করবো এদের মাঝ থেকেই ব্রিটেনের ভবিষ্যত নেতৃবৃন্দ বেরিয়ে আসবে। ইসলাম এবং মুসলমানদেরকে বৈষম্য-নির্যাতন-নিপীড়ন থেকে উত্তরণে কেবল জাতীয় পর্যায়ে নয়, আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও দারুল হাদীস লাতিফিয়ার গ্র্যাজুয়েটরা অবদান রাখবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

টাওয়ার হ্যামলেটস এর নির্বাহী মেয়র জন বিগস্ স্কুলের প্রসংশা করে বলেন, বহুজাতিক বৃটেনে পারস্পরিক সম্প্রীতি ও ভালবাসার মাধ্যমে একটি সহনশীল সমাজ গঠনে দারুল হাদীস লাতিফিয়া অগ্রণী ভুমিকা রাখছে। এ ধরনের স্কুল সমাজে পজিটিভিটি পরিবর্তন নিয়ে আসে। আমি আজকের গ্রাজুয়েটদেরকে কনগ্রাচুলেশন জানাই এবং টাওয়ার হ্যামলেটস এর বিভিন্ন বিভাগে তারা তাদের যোগ্যতা দিয়ে প্রবেশ করে এই বারাকে আরো উন্নততর পর্যায়ে নিয়ে যাবে বলে আমি মনে করি।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক জনাব ফয়জুল আলী, গ্রাজুয়েটদের পক্ষ থেকে হাফিজ মাওলানা আব্দুল ওয়াছী আরিফ, মাদ্রাসার ছাত্র হাফিজ হোসাইন আহমদ ওয়াদুদ।

মাহ্ফিলে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত থেকে প্রাণবন্ত এই অনুষ্ঠান উপভোগ করেন তানজানিয়ান রিপেয়ে এর প্রেসিডেন্ট হারুন নাবিয়ূ, টাওয়ার হ্যামলেটস্ এর ডেপুটি স্পিকার আহবাব হোসাইন, আল ফালাহ স্কুল এর শায়েখ আমীর, ওয়েস্ট আফ্রিকান কমিউনিটির প্রতিনিধি ইমাম ইব্রাহীম চাম, মুসলিম এসোসিয়েশন নাইজেরিয়ার প্রধান ইমাম ইমাম তাজ উদ্দীন সালামী, মিনহাজুল কুরআন ইন্টারন্যাশনাল এর ডাইরেক্টর আল্লামা সাদিক কুরাইশি, কাউন্সিলর শাহ্ সোহেল আমীন, কমিউনিটি নেতা একেএম আবু তাহের চৌধুরী, সাপ্তাহিক সুরমা পত্রিকার সম্পাদক ফরিদ আহমদ রেজা, মাওলানা শামসুদ্দীন নূরী, মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা মুফতি ইলিয়াছ হোসাইন, মুহাদ্দিস মাওলানা নজরুল ইসলাম, মাওলানা শেহাব উদ্দীন, ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুল কাহ্হার, মুফতি আশরাফুুর রহমান, মাওলানা আব্দুল আউয়াল হেলাল, ব্রিটিশ মুসলিম স্কুল এর প্রিন্সিপাল মাওলানা এম.এ কাদির আল হাসান, কিথলী শাহজালাল মসজিদের খতীব মাওলানা ফখরুল ইসলাম, বায়তুল আমান মসজিদের খতীব মাওলানা আব্দুল মালিক, আনজুমানে আল ইসলাহ ইউকে’র ভাইস প্রেসিডেন্ট মাওলানা ফখরুল হাসান রুতবাহ, মাওলানা ছাদ উদ্দীন সিদ্দীকী, মানচেস্টার শাহজালাল মসজিদের খতীব মাওলানা খায়রুল হুদা খান, বার্মিহ্যাম মাল্টিপারপাস সেন্টার এর চেয়াম্যান ইমদাদ হোসাইন,  মাদ্রাসার গভর্নিং বডির সদস্য হাফিজ মাওলানা কয়েছুজ্জামান, আলহাজ্জ গোলাম রব্বানী, আবদুল কালাম, নজরুল ইসলাম গজনভী, ব্রিকলেন জামে মসজিদের প্রেসিডেন্ট সাজ্জাদ মিয়া, মুফতি আব্দুর রহমান নিজামী, ক্বারী আব্দুল মুনতাকিম রাহেল, ম্যানচেস্টার শাহজালাল মসজিদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আলাউদ্দীন, জকিগন্জ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন এর সভাপতি হামিদুর রহমান চৌধুরী আজাদ, সাবেক সভাপতি মশিউর রহমান শাহীন, হারুনুর রশীদ চৌধুরী, মাদ্রাসার সেক্রেটারী বদরুল ইসলাম, মাওলানা মুসলেহ উদ্দীন, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুছ, মাদ্রাসার শিক্ষক নজমুল হক, হাফিজ মাওলানা আনহার আহমদ, মাওলানা ফয়সাল আহমদ হানাফী, মাওলানা ফারুক আহমদ, মাওলানা আবদুশ শহীদ, হাফিজ আসকির মিয়া, ক্বারী আব্দুল কাদির, হাজী সিরাজ উদ্দীন খান, ক্বারী শরীফ উদ্দীন, মিজান খানসহ অভিভাবকবৃন্দ, শিক্ষাবীদ, স্থানীয় বিভিন্ন স্কুল মাদ্রাসার প্রধানগণ, কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও খতীব, মাদ্রাসার পেট্রনগণ ও শুভাকাংখী শুভানুধ্যায়ীবৃন্দ। অনুষ্ঠানে কুরআনে পাক থেকে তিলাওয়াত করেন হাফিজ মাওলানা আনহার আহমদ, ক্বারী আব্দুল ওয়াহীদ, ইয়াহইয়া আলী ও হামযা কাসিম। নাশিদ পরিবেশন করেন মাহির উদ্দিন ও লোকমান আহমদ মারুফ। অনুষ্ঠানের শেষে নৈশভোজের মাধ্যমে মেহমানদেরকে আপ্যায়ীত করা হয়। উল্লেখ্য ব্রিটেনের অন্যতম প্রাচীন এই দ্বীনী প্রতিষ্ঠান উপমহাদেশের প্রখ্যাত বুযুর্গ হযরত আল্লামা আব্দুল লতিফ চৌধুরী ফুলতলী (রহ.) ১৯৭৮ সালে আদর্শ মুসলিম ব্রিটিশ নাগরিক গড়ে তোলার লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠা করেন।

Dream Sylhet
ড্রীম সিলেট
ড্রীম সিলেট
এই বিভাগের আরো খবর