সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৩ ১৪২৬   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

৪০৯

রুমা বেগমের অভিযোগে কি রয়েছে রহস্য ! 

ঘটনা সত্য, দূর্বল স্বাক্ষীতে এজহার মিথ্যা তথ্য

প্রকাশিত: ১৩ জুন ২০১৯ ২২ ১০ ২৫  

স্টাফ রিপোর্ট:: সত্য শপথে মিথ্যা ঘোষনা যেন এখন এক অভ্যাস। চারপাশে এমনটিই ঘটছে। খোদ আদালতে সুবিচার প্রত্যাশা নিয়ে হরহামেশা করছে বিচার প্রার্থীরা। সামাজিক জীবনে তুচ্ছ ঘটনায় হানাহানি ঘটছে পরস্পর। কিন্তু তিলকে তাল করে বিচারের আশায় বুক বাধেন মানুষ। উদ্ভুত এহেন তৎপরতা চোখ এড়িয়ে যায় না। অভিযোগ তদন্তের আগে জেল কাটিয়ে তড়িৎ মনের খায়েশ পূর্ণ করতে চায় সকলে। বিচার তো পরের ব্যাপার যেন। সেই পথে ছাগলের বিচার চাইতে গিয়ে গরু খোয়াচ্ছে ভোক্তভোগীরা।

কেন এমন হচ্ছে ! তা নিয়ে বিশ্লেষনের শেষ নেই। কিন্তু ঘটনার শুরুতেই দেখা যায়, তুচ্ছ ঘটনাকে মনের মাধুরিতে মিশিয়ে অভিযোগ দাঁড় করানোর চেষ্টা করছেন মামলার বাদিরা। অনেক ক্ষেত্রে বাদির কারনেই মুল ঘটনা চাপা পড়ছে। যা হয়নি, যা ঘটেনি তাই লিখে শায়েস্তা করতে চাচ্ছেন মামলার বাদিরা। সেকারনে কারো নাম হয় মামলাবাজ। জেদ ও হিংসা থেকে এমনটিই অহরহ ঘটছে।  

দেশে আসামীর সুরক্ষা সুদড় নয় বলেই, বাদিরা মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে বিচার ব্যবস্থাকে যেমন বিভ্রান্ত করছে তেমনি সমঝোতার পথ হচ্ছে রুদ্ধ। বিজ্ঞ মহল মনে করেন, বাদির অভিযোগের মনগড়া তথ্য প্রথমে আমলে সর্তকতা বজায় রাখলে, হয়রানীর অস্ত্র হিসেবে মামলা দিয়ে ঘায়েল করার চেষ্টা করতো না হয়তো কেউ।  

মিথ্যা বয়ান, মিথ্যা স্বাক্ষীর উপর ভরশা করে ঘটনাকে শুরুতেই ধুম্রজাল সৃষ্টি কেন করা হয়। ভূক্তভোগীদের মতামত হলো, মামলা অভিযোগ লেখাতে ভূক্তভোগীরা যাদের সহায়তা নেন তারাই প্ররোচিত করেন আইনের ফাঁক ফোঁকরে আমল অযোগ্য ঘটনাকে মামলায় রূপ দিতে। কোনভাবে অভিযোগটি আদালত বা থানা পুলিশের নজরে দিতে পারলেই যেন খোশ।

ক্ষেত্র বিশেষ সমঝোতার নামে মোটা অংকের টাকা আদায়। তা না হলে মিথ্যা বয়ানে নিজের ভূল অভিযোগ, ভূলে গিয়ে থানা পুলিশকে দোষারোপ বা গলা ফাটিয়ে দেশে বিচার নেই বলে অপবাদ দেয়া নিত্য হয়ে গেছে। অভিযোগ ও বাস্তবিক ঘটনার যাচাই বাচাইয়ে একরম অনেক ক্ষেত্রে সত্যতা প্রতীয়মান হয়। এরকম একটি  ঘটনা ঘটছে নগরীর উপশহরের ব্যবসায়ী রুমার বেগমের আদালতে দায়েরকৃত মামলার একটি এজহার অনুসন্ধান। চাঞ্চল্যকর তথ্যে নিয়ে ড্রিম সিলেটের অনুসন্ধানী আয়োজন।।


 
 
 

Dream Sylhet
ড্রীম সিলেট
ড্রীম সিলেট
এই বিভাগের আরো খবর