শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৪ ১৪২৬   ২০ মুহররম ১৪৪১

৩১৯

বিশ্বের প্রথম ভাসমান পরমাণু চুল্লি চালু করলো রাশিয়া

প্রকাশিত: ২৪ আগস্ট ২০১৯ ১৪ ০২ ৪৮  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: আর্কটিক সাগরে ভাসমান পরমাণু চুল্লির উদ্বোধন করেছে রাশিয়া। আকাদেমিয়া লোমোসনোভ নামের চুল্লিটিই বিশ্বের প্রথম কোনো ভাসমান পরমাণু চুল্লি।

পরমাণু অস্ত্রবিরোধী অধিকার সংগঠন ও পরিবেশবাদীদের হুশিয়ারি সত্ত্বেও শুক্রবার আর্কটিকের মুরমানস্ক বন্দরে এটার উদ্বোধ করে মস্কো। ১৪৪ মিটার দীর্ঘ চুল্লিটির নির্মাণকাজ শুরু হয় ২০০৬ সালে।

পরমাণু জ্বালানি পূর্ণ চুল্লিটি এখন ৫ হাজার কিলোমিটার সমুদ্রপথ পাড়ি দিয়ে উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় সাইবেরিয়ার পেভেক বন্দরে নিয়ে যাওয়া হবে। রাশিয়ার পরমাণু শক্তি সংস্থা রোসাটম বলেছে, প্রচলিত পরমাণু চুল্লির বিকল্প হিসেবে এ চুল্লি নির্মাণ করা হয়েছে। এটা তৈরি করাও সহজ। আর্কটিক সারা বছর বরফে জমে থাকায় এর পরিচালনাও অনেক সহজ।

তবে পরিবেশবাদী সংগঠনগুলো বলছে, পানির ওপর পরমাণু চুল্লি প্রকল্প বড় বিপদ বয়ে আনতে পারে। এতে আরেকটি ‘চেরনোবিল কাণ্ড’ বা আরেকটি ‘পরমাণু টাইটানিক বিপর্যয়’ ঘটতে পারে বলেও বহুদিন ধরে হুশিয়ারি জানিয়ে আসছে তারা।

চলতি মাসেই রাশিয়ার পরমাণু চালিত একটি সাবমেরিন বিস্ফোরণের পর রেডিয়েশন ছড়িয়ে পড়ায় এ নিয়ে উদ্বেগ আরও বেড়েছে। এএফপি।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার জবাব দেবে রাশিয়াও : রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দেশটির সেনাবাহিনীকেও ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেছেন। শুক্রবার রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়কে এ নির্দেশ দেন পুতিন।

তিনি বলেন, ‘আমরা কখনই ধ্বংসাত্মক অস্ত্রের দৌড়ে অংশ নিতে চাইনি। কিন্তু এখন পরিস্থিতি ভিন্ন দিকে যাচ্ছে। কারণ রাশিয়ার সীমান্তের নিকটবর্তী হওয়ায় এটি আমাদের মূল স্বার্থকে আক্রমণ করে।’

পরস্পরকে দুষছে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র : স্নায়ু যুদ্ধ যুগের পারমাণবিক চুক্তি থেকে সরে আসার পর জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে ‘অস্ত্র প্রতিযোগিতা’র জন্য পরস্পরকে দোষারোপ করেছে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র।

বৃহস্পতিবার নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে রাশিয়া বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার জন্য প্রস্তুত। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র বলছে, ‘মস্কো নিজেদের অস্ত্রভাণ্ডার ক্রমাগত হালনাগাদ করে যাচ্ছে।’ এএফপি।

গত মাসে ‘ইন্টারমিডিয়েট-রেঞ্জ নিউক্লিয়ার ফোর্সেস (আইএনএফ) চুক্তি থেকে সরে যায় মস্কো ও ওয়াশিংটন। দুই পক্ষই চুক্তি লঙ্ঘনের জন্য একে অপরকে দোষারোপ করে।

Dream Sylhet
ড্রীম সিলেট
ড্রীম সিলেট
এই বিভাগের আরো খবর