শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৪ ১৪২৬   ২০ মুহররম ১৪৪১

৮২

ফ্রিতে ক্রিকেট খেলতে চায় জিম্বাবুয়ে

প্রকাশিত: ৩১ জুলাই ২০১৯ ১১ ১১ ৪৮  

স্পোর্টস ডেস্ক :: ক্রিকেট যদি মনের খোরাক হয়, সেই ক্রিকেটকে ছেড়ে থাকা বড় দায়। দেশের সরকারের খামখেয়ালিপনা কিংবা অতি প্রভাবেরই যেন বলি হতে হলো ক্রিকেটকে। তবে আইসিসির নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করেও খেলা চালিয়ে যেতে চান জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটাররা। তাদের জানা নেই, কবে মুক্তি মিলবে। কবে আবার ২২ গজে নামতে পারবেন। কিন্তু ক্রিকেটের সঙ্গে বিচ্ছেদটা হোক কিছুতেই বোধ হয় চাচ্ছেন না তারা। তাই তো ক্রিকেটকে বাঁচিয়ে রাখতে ফ্রিতেও খেলতে চাচ্ছেন।ক্রিকইনফোর সঙ্গে এক সাক্ষাতে জিম্বাবুয়ে দলের এক সিনিয়র ক্রিকেটার এমন অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছেন। এত হতাশার মাঝেও টানেলের শেষ প্রান্তে আলোর দেখা পাচ্ছেন তিনি, 'আমরা কোনো রকম ফি ছাড়াই খেলতে চাই। যতদিন পর্যন্ত না আমরা আলোর দেখা পাব, ততদিন ফ্রিতে খেলা চালিয়ে যেতে চাই। আমাদের পরবর্তী অ্যাসাইনমেন্ট টি২০ বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়ার। সেখানে আমরা অংশ নিতে চাই। ফি ছাড়াই সেখানে খেলতে চাই।'ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের বাছাই পরীক্ষায় পাস না করার পরই শুরু হয় যত ঝামেলা। সব দোষ গিয়ে পড়ে খেলোয়াড়দের ওপর। কেবল সমালোচনাই নয়, অনেক ক্রিকেটার জেরার মুখেও পড়েন। এরপর যা করল দেশটির সরকার। সেটা একেবারে আইসিসির নীতিবহির্ভূত। বোর্ডকে ক্ষমতাশূন্য করে পুরো দায়িত্ব নেয় জিম্বাবুয়ে সরকার। পুরো পরিচালনা পর্ষদও সরিয়ে ফেলা হয়। যেটা একেবারে ক্রিকেটের সঙ্গে বেমানান ছিল। তাতে আইসিসিও সাময়িকভাবে তাদের সদস্যপদ স্থগিত করে দেয়। যার ফলে আইসিসির কাছ থেকে বন্ধ হয়ে যায় সব ধরনের অনুদানও।পরবর্তী বোর্ড মিটিং অক্টোবরে। সেখানে হয়তো এ ব্যাপারে আরেকটি আপডেট দেবে আইসিসি। তার আগে যদি জিম্বাবুয়ে সমস্যার সুরাহা করে তাহলে হয়তো আবারও ক্রিকেট ফিরবে জিম্বাবুয়ের ঘরে। না হলে হতে পারে আরেক কেনিয়া!

Dream Sylhet
ড্রীম সিলেট
ড্রীম সিলেট
এই বিভাগের আরো খবর