শনিবার   ১৯ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৪ ১৪২৬   ১৯ সফর ১৪৪১

১২৫৮

ফেসবুকে সমালোচনা তুঙ্গে: আড়ংয়ের পণ্য বয়কটের ঘোষণা 

প্রকাশিত: ৪ জুন ২০১৯ ১৪ ০২ ৫১  

এ টি এম তুরাব :: আড়ং জরিমানা করা সেই শাহরিয়ারকে বদলি করায় সামাজিক মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় বইছে। বদলির নেপথ্যে আড়ংয়ের প্রভাব রয়েছে মনে করে ফেসবুকে ডাক এসেছে প্রতিষ্ঠানটি বয়কটের। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এই আদেশটি ওয়েব সাইটে আসার পর তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। মূহুর্তেই ফেসবুক ব্যবহারকারীদের প্রোফাইল ও নিউজফিডে ছড়িয়ে পড়ে। 
আড়ং এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদের বহিঃপ্রকাশ হিসেবে আড়ংয়ের সবধরনের পণ্য ‘বয়কট’ এর ডাক দিয়েছেন অনেকেই। আবার অনেকে ক্রয়করা পণ্য ফেরত দেওয়ার আহবান জানিয়ে পোস্ট করেন। ইতোমধ্যে হ্যাশ ট্যাগ দিয়ে চালু হয়েছে ‘বয়কট আড়ং ক্যাম্পেইন’ (#boycot_aarong)। আড়ং বয়কটের লোগোযুক্ত ছবি নিজেদের টাইমলাইনে প্রোফাইল পিকচার হিসেবেও দিচ্ছেন অনেকে। 
#সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবীর ফেসবুকে ওয়ালে লিখেছেন, আড়ংএ অভিযান। ভোক্তার অধিকার রক্ষা করায় অভিযানে নিয়োজিত দুই কর্মকর্তাকে পুরস্কারের পরিবর্তে তিরস্কার। শক্তিশালী প্রতারক চক্র, ভূলন্ঠিত ভোক্তার অধিকার। সরকারকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য এই অাদেশ কে বা কারা করেছেন, জাতি জানতে চায়।
#দৈনিক জালালাবাদের নির্বাহী সম্পাদক সিনিয়র সাংবাদিক আবদুল কাদের তাপাদার ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, আড়ং এ জরিমানা আদায়কারী ও শো রুম বন্ধের নির্দেশদাতা সৎ, সাহসী সরকারি কর্মকর্তাকে তাৎক্ষণিক বদলি করার নায়ক কে? তাকে শাস্তির আওতায় আনা হোক। প্রশাসনে এ ধরনের অসৎ লোককে তাড়িয়ে বিদায় করা হোক।
#ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসেন ফেসবুকে লিখেছেন, অাড়ং!!!!!
৭'শ টাকার পাঞ্জাবি ১৩'শ টাকা। মাঝখানে সময়ের ব্যবধান ৬ দিন। ৬ দিনে দাম বাড়িয়ে দিয়েছে ৬'শ টাকা। ভুক্তভোগী মানুষটি অভিযোগ জানালেন ভোক্তা অধিদপ্তরে। অধিদপ্তর সত্যতা পেয়ে করলেন জরিমানা। ঘটনাটি এখানেই শেষ হওয়ার কথা। কিন্তু শেষ হয়নি। ঘটনা জন্ম দিচ্ছে ঘটনার। সরকারের যে কর্মকর্তা অভিযান পরিচালনা করেছে তাকে বদলি করা হয়েছে দূরে অন্য দপ্তরে। এই বদলির কারণটা কী? বদলি হতেই পারে তবে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বদলির নিন্দা জানাই। মঞ্জুর শাহরিয়ার একটি সাহসী কাজ করেছেন। জনগণের পক্ষ নিয়েছেন। মঞ্জুর শাহরিয়ারকে হয়রানি না করে তার পাশে দাঁড়ান। এসব ঘটনা ঘটতে দিলে বা এসবের প্রতিবাদ না হলে মঞ্জুর শাহরিয়াররা হারিয়ে যাবে তখন জনগণও মুখ ফিরিয়ে নিবে। আসুন মঞ্জুর শাহরিয়ারের বদলি আদেশ প্রত্যাহারের আগ পর্যন্ত আড়ংয়ের সামনে দাঁড়াই। তাদের পণ্য বর্জন করি। 
#সময় টেলিভিশনের সিলেট অফিসের স্টাফ রিপোর্টার আব্দুল আহাদ তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, বৃটিশ বেনিয়ার হাতে আবারও বাঙলার পরাজয়। দেশপ্রেমিক শাহরিয়ারকে হটিয়ে মসনদে স্যার আড়ং আবেদ। মীরজাফরের উত্থান, পরাজিত সিরাজুদ্দৌলা।
#সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি আব্দুল বাছিত রুম্মান ফেসবুকে লিখেছেন, আড়ংকে না বলুন পছন্দের লাল নীল কালার বর্জন করুন। হাসান মার্কেট এর ফাতেমা ক্লথ ষ্টোর, শুকরিয়া মার্কেট এর মামুন, রিমন, নিখুঁত পান্জাবী। ঐ রকম পান্জাবীর দোকান ঘুরে আসুন। বিলাসিতা না করে অসহায় হতদরিদ্রদের সাথে ভাগাভাগি করি ঈদের আনন্দ।
#খলিলুর রহমান রানা নামের এক যুবক তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, আড়ং তার হ্যাডম দেখিয়েছে....এবার জনগনের হ্যাডম দেখানোর পালা !
তার লেখায় অনেকে বর্জন করা হোক কমেন্ট করলেও সারওয়ার মিলন কমেন্ট করেন, উনি নোয়াখালি, বেগমগন্জের কৃতি সন্তান। ২২তম বিসিএস-এ উনি ম্যাজিট্রেট হয়েছেন। উনাকে স্যালুট #এটাই কি সততার প্রতিদান!!! উনাকে স্বপদে পুণবহাল করা হোক...
#আরব আমিরাতের দেশ ওমান প্রবাসী মো: রিয়াদ ইসলাম লিখেছেন, টাকার জোরে একজন সৎ অফিসার কে বদলি! আসুন আমরা আড়ং এর চিন্তা কে বদলে দিই! # Boycott Aarong
#শেখ ইমরানুল ইসলাম ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, আড়ং এর ক্ষমতা কি রাষ্ট্রের চেয়ে ও বেশি প্রশ্ন রইলো? 
তার লেখাটিতে আব্দুল মালেক উজ্জ্বল নামের একজন কমেন্ট করেন, শুধুই মুখে মুখে দুর্নীতি রোধ...বাস্তবে সবাই টাকা, ঘুষ এর কাঙ্গাল। এ দেশের হবেটা কি? 
হুমায়ুন কবির নামের আরো একজন কমেন্ট করেন, জনস্বার্থ তুমি কার? জনতার নাকি ক্ষমতার?

প্রসঙ্গ- সোমবার দুপুরে এক ক্রেতার অভিযোগের ভিত্তিতে আড়ংয়ের উত্তরা শাখায় অভিযানে নেতৃত্ব দেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের উপপরিচালক মঞ্জুর শাহরিয়ার। মোহাম্মদ ইব্রাহিম নামের ক্রেতার অভিযোগ, গত ২৫ মে তিনি আড়ংয়ের উত্তরা শাখা থেকে ৭১৩ টাকায় একটি পাঞ্জাবি কিনেছিলেন। ছয় দিন পর ৩১ মে ওই একই পাঞ্জাবি কিনতে গিয়ে দেখেন, সেটির দাম ১৩০৫ টাকা। বেশি দামেই পাঞ্জাবিটি কিনে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরে অভিযোগ করেন তিনি। তার অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার আড়ংয়ে অভিযান চালিয়ে সাড়ে চার লাখ টাকা জরিমানা করেন। 
জরিমানা করার কয়েকঘন্টার মধ্যে বদলি হতে হলো মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারকে। সোমবার (৩ জুন) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মুহাম্মদ আব্দুল লতিফের সই করা প্রজ্ঞাপনে এ বদলির আদেশ দেয়া হয়। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের বিভাগীয় কার্যালয় ঢাকার উপ-পরিচালক মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারকে এস্টেট ও আইন কর্মকর্তা হিসেবে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সড়ক ও জনপথ অধিদফতর, খুলনা ন্যস্ত করা হয়। তাকে আগামী ১৩ ‍জুন বদলি করা কর্মস্থলে যোগ দেয়ার জন্য বলা হয়। প্রজ্ঞাপনে আরো বলা হয়, নতুন কর্মস্থলে যোগ না দিলে ১৩ জুন বিকেলে তিনি বর্তমান কর্মস্থল থেকে তাৎক্ষণিকভাবে অবমুক্ত (স্ট্যান্ড রিলিজ) বলে গণ্য হবেন।

Dream Sylhet
ড্রীম সিলেট
ড্রীম সিলেট
এই বিভাগের আরো খবর