শনিবার   ১৯ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৩ ১৪২৬   ১৯ সফর ১৪৪১

১৮৯

ফেঞ্চুগঞ্জে জমেনি  কুরবানির হাট, লোকসানে ইজারাদার

প্রকাশিত: ১১ আগস্ট ২০১৯ ২০ ০৮ ৩৫  

মুহাম্মদ হাবিলুর রহমান জুয়েল::  ঈদের আগের দিন সবচেয়ে বেশি বেচাকেনা হওয়ার কথা ছিল  ফেঞ্চুগঞ্জের প্রধান গরুর হাটে৷ এবছর বন্যায় ফেঞ্চুগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হওয়ায় কিছুটা দুর্বল গরু ছাগল দেখা গেছে হাটে৷
তবে পশুর মালিকদের দাবি তাদের গরুগুলো কুরবানির উপযোগী৷ যদিও বেশিরভাগ গরু গৃহপালিত হওয়ায় মোটাতাজা রয়েছে।

কিন্তু সরজমিন ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার প্রধান গরুর হাট ডাক বাংলা মাঠে গিয়ে দেখা গেল বিক্রেতা বেশি কিন্তু ক্রেতা নেই।

এ প্রসঙ্গে ইজারাদারদের পক্ষ থেকে হাফিজ তরিকুল ইসলাম তোফা ও জুয়েল আহমদ জানান, কিছু সংখ্যক ব্যবসায়ী গরুর হাটে না এসে বাড়িতে এবং রাস্তাঘাট সহ ফেঞ্চুগঞ্জের পার্শ্ববর্তী কিছু অনুমোদন হীন অস্থায়ী গরুর হাট বসার কারণে ক্রেতা শুন্য। তারা জানান, এবছর তাদের লক্ষ ছিল প্রায় এক কোটি টাকার ব্যবসা হবে কিন্তু ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার পাশাপাশি কিছু গরুর হাটের কারনে তাদের পক্ষে ৩০ লক্ষ টাকার মত অর্থ ইজারায় আসেনি।  এতে একদিকে যেমন সরকার রাজস্ব হারাচ্ছে অন্যদিকে বিপদের মুখে রয়েছেন ইজারাদাররা। 

এছাড়াও তাদের অভিযোগ প্রতি বছর তারা সরকারকে কোটি টাকার রাজস্ব দেওয়া সত্বেও গরুর হাটের কোন উন্নয়ন হয়নি। অন্যদিকে তাদের সীমিত জায়গার কারণে পাশেই একটি পুকুর থাকায় সেখানে ঘটছে অনেক দুর্ঘটনা। তাদের দাবি সেখানে একটি গার্ড ওয়াল স্থাপনের প্রয়োজন। নেই পর্যাপ্ত শেডঘর। 

বৃষ্টি এবং বন্যার কারণে গরু কমেছে এবং ক্রেতাদের পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানান।
 

Dream Sylhet
ড্রীম সিলেট
ড্রীম সিলেট
এই বিভাগের আরো খবর