শনিবার   ১৯ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৪ ১৪২৬   ১৯ সফর ১৪৪১

৩৭৪২

প্রেমের জেরে উপশহরে গণধোলাই খেলেন থাই শ্রমিক সুমন ! 

প্রকাশিত: ১৪ জুন ২০১৯ ২২ ১০ ২০  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ডেস্ক নিউজ:: জনৈক এক স্কুল ছাত্রীর সাথে মাতিয়ে প্রেম করছিলেন উপশহরের থাই শ্রমিক এইচ আর সুমন। ওই মেয়েকে কখনো বড় ব্যবসায়ী, কখনো রাজনীতিক নেতা, কখনো লন্ডনী বাবার পূত্র ইত্যাদি বলে ফুটানী মারতেন তিনি। বিষয়টি নিয়ে ওই মেয়ের সন্দেহ হলে সে গোপনে খবর নিয়ে সুমনের বাটপারী ধরে ফেলে। সেই সাথে বেরিয়ে যায় সুমন চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী সহ ২ টি অপহরন মামলার । এরপর থেকে মেয়েটি এডিয়ে যেতে তাকে সুমনকে। সুনামগঞ্জের বাসিন্দা মেয়েটি তার পরিবারের সাথে একটি কলোনীতে তাকে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সুমন তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে চাপ সৃষ্টি করেন। সুমন তার চাকুরীসহল এরামিট থাই এ্যালুমিনিয়াম দোকানে  ডুকিয়ে  শিক্ষা দিবেন বলে হুমকি দেন।  বিষয়টি তার কয়েক সহপাঠি সহ কলোনীর শুভাকাংখিদের জানায়। আজ সন্ধ্যায় ওই মেয়ে কোন এক কাজে বের হলে সুমন তাকে বলেন, আজ তোকে বাঁচায় কে দেখবো। মেয়েটি তখন দুই এক সহপাঠির নাম বলে জানায় তারা তাকে মানা করছে সুমনের সাথে মিশতে। এরপরই ফোন করে ওই সহপাঠিদের তার সাথে দেখা করতে বলেন। ফোন পেয়ে ওরা সন্ধ্যায় সুমনের নিকট ই ব্লকের ৫ নং রোডে আসা মাত্রই সুমন  তাদের শাসিয়ে ঠ্যাং ভেংগে দেয়ার হুমকি দেন, এতে উত্তেজিত হয়ে সুমনকে ধরে গণধোলাই দেয় কথিত প্রেমিকার সহপাঠীরা। একাধিক সুত্র জানায় সুমন বখাটে প্রকৃতির। মেয়েদের ইউটিজিং সহ নানাভাবে গায়ে পড়ে পিছু লেগে তাকে। এদিকে এ ঘটনার মুল কারন আড়াল করে, রাজনীতিক রং লাগিয়ে সংঘাত বা মামলা দিয়ে হয়রানীর ধান্ধ্যা করছেন জকিগঞ্জের মহিদপুর গ্রামের ছেলে "গনধোলাই সুমন" এমন তথ্য এখন চাউর হচছে উপশহরে, একাধিক সুত্র এমনটিই জানিয়েছে। ঘটনার পর পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে, যে দোকানের সামনে ঘটনা ঘটেছে দোকানদার কুতুব জানান, হঠাৎ করে সুমন দৌড়ে এসে আমার দোকানের ভিতরে ঢুকে পরে কয়েকটি ছেলে ওকে ধরে নিয়ে কিল ঘুষি থাপ্পর মেরে চলে যায়।   

Dream Sylhet
ড্রীম সিলেট
ড্রীম সিলেট
এই বিভাগের আরো খবর