বুধবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ২ ১৪২৬   ১৮ মুহররম ১৪৪১

৩৪১

দাবদাহে পুড়ছে সিলেট শুক্রবার বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা

এ টি এম তুরাব::

প্রকাশিত: ১২ জুন ২০১৯ ২০ ০৮ ৫১  

সকাল-দুপুর-সন্ধ্যা রোদের প্রখর তেজ। হঠাৎ করেই অসহনীয় দাবদাহ আর খরতাপে পুড়ছে পুরো সিলেট। অসহনীয় ভ্যাপসা গরমে ঘরে-বাইরে সর্বত্রই হাঁসফাঁস। বাতাসে আগুনের হল্কা। রাস্তায় পিচ গলতে শুরু করেছে। বাড়িঘরে ফ্যানের বাতাসও তপ্ত। মানুষ ঘেমে-নেয়ে একাকার। বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ বেশি থাকায় ভ্যাপসা গরমে বেশি হারে ঘামছেন মানুষজন। ঘামে দুর্বল হয়ে পড়ছে। জনজীবনে কাহিল অবস্থা। চারদিকে মানুষ ছাড়াও প্রাণিকূল ছটফট করছে। তীর্যক সূর্যের দহনে দিনমান অতিবাহিত হচ্ছে। গতকাল মঙ্গলবার সিলেটের তাপমাত্র ছিলো ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তাপমাত্রার পারদও উঁচুতে থাকায় গরমের তীব্রতা বেশি অনুভূত হচ্ছে বলে জানিয়েছে সিলেট আবহাওয়া অধিদপ্তর। 
আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্র জানায়, আজ ও কাল গরমের পারদ আরো বাড়তে পারে। এ সময় হালকা বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনার কথা বলছেন তারা। তবে শুক্রবার নাগাদ ভারী বর্ষণ নামতে পারে এবং তাপমাত্রা কমতে পারে বলে জানায় আবহাওয়া অফিস।
সিলেট নগরীসহ জেলা জুড়ে অসহনী গরমে ঘামে নাকাল অবস্থায় সাধারণ মানুষ। পথচারীরা রাস্তাঘাটে ফেরি করা আইসক্রিম, লেবুর শরবত ও হরেক রকম পানীয় নিয়ে একটু গলা ভেজানোর চেষ্টা করছে। যদিও এসব খোলা পানীয় বিভিন্ন রোগের বাহন হতে পারে। চিকিসৎকরা এ সময়ে বেশি করে বিশুদ্ধ পানি পানের পরামর্শ দিয়ে কড়া সতর্ক করেছেন, রাস্তাঘাটের দূষিত পানীয় বা ফল-ফলারি খেয়ে হিতে বিপরীত হতে পারে। রোদে কর্মরত লোকজন, অসুস্থরা ও শিশু-বৃদ্ধরা।
তীর্যক সূর্যেরকিরণে অসহ্য খরতাপে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা সর্বত্র ব্যাহত হচ্ছে। গুমোট আবহাওয়ায় অবিরত ঘামঝরা ভ্যাপসা গরমে শ্রমজীবী দিনমজুর সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে শিশু-কিশোর, বয়োবৃদ্ধদের কষ্ট অসহনীয়। গরমের সাথে সাথে বিশুদ্ধ পানির অভাবে সবখানেই চলছে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ, হাহাকার অবস্থা। কিশোররা দল বেঁধে নদী-খালে, পুকুর-দীঘিতে ঝাঁপ দিয়ে গা শীতল করছে। গরমে যখন মানুষের পানির চাহিদা বেড়ে গেছে, তখন প্রায় সর্বত্র পানির সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে। পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ার কারণে গভীর-অগভীর অনেক নলকূপে পানি উঠছে না। এ অবস্থায় বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট বেড়ে গেছে। অসহনীয় ঘাম ও ভ্যাপসা গরমের কারণে ডিহাইড্রেশনে শরীর দ্রুতই কাহিল হয়ে পড়ছে। রাতের তাপমাত্রার পারদও এখন বেশ উঁচুতে। এতে করে গরম তীব্রভাবে অনুভূত হচ্ছে। 
 

Dream Sylhet
ড্রীম সিলেট
ড্রীম সিলেট
এই বিভাগের আরো খবর