সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৩ ১৪২৬   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

৫৪৩

`ছেলে ধরা’ গুজব ঠেকাতে মাঠে থাকবে ৬১ লাখ আনসার সদস্য

প্রকাশিত: ২৩ জুলাই ২০১৯ ২০ ০৮ ৩৩  

জাতীয় ডেস্ক::  'ছেলে ধরা’ গুজব এবং আতঙ্ক ঠেকাতে মাঠে কাজ করছে ৬১ লাখ আনসার সদস্য। এরইমধ্যে গ্রাম, ইউনিয়ন পর্যায়ে লিডারদের কাছে এই বার্তা পৌঁছানো হয়েছে। নিজ নিজ অবস্থান থেকে আনসার সদস্যরা এই ইস্যুতে কাজ করছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি'র মহাপরিচালক (ডিজি) মেজর জেনারেল কাজী শরীফ কায়কোবাদ। 

মঙ্গলবার রাজধানীর খিলগাঁওয়ে বাহিনী সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। 

সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার আসিফ ইকবাল, উপমহাপরিচালক মাহবুব হাসান, পরিচালক (অপারেশন) ড. সাইফুর রহমানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। 
আনসার ভিডিপি’র ডিজি বলেন, পদ্মা সেতু নিয়ে গুজবে কান না দেয়ার জন্য গ্রাম পর্যায়ে সাধারণ মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে বার্তা পাঠানো হয়েছে। গ্রাম, ইউনিয়ন পর্যায়ে আনসারের লিডার যারা আছেন তাদের কাছে এই বার্তা পাঠানো হয়েছে। এই গুজবে কান না দিতে জনসাধারণকে সচেতন করবেন ৬১ লাখ আনসার সদস্য।

মেজর জেনারেল কাজী শরীফ কায়কোবাদ বলেন, সারা দেশে গ্রাম, ইউনিয়ন ও উপজেলা পর্যায়ে সাড়ে ১২ হাজার আনসার কমান্ডারকে ভাতার আওতায় আনা হয়েছে। এছাড়া আনসার ও ভিডিপি সদস্যের উন্নত প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। আগে থ্রি নট থ্রি রাইফেল ব্যবহার করা হতো। এখন নতুন ৩০ হাজার অস্ত্র এই বাহিনীর জন্য আনা হয়েছে। আরও ২০ হাজার অস্ত্র আনা হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে আনসার ভিডিপি প্রধান বলেন, অন্য বাহিনীর সঙ্গে কাজ করার সুবাদে ভালো জিনিসও শিখে এবং খারাপ জিনিসও তাদের মধ্যে ঢুকে পড়ার সম্ভাবনা থাকে। তবে কোনো আনসার সদস্য অপরাধে জড়িয়ে পড়লে তার বিরুদ্ধে শাসিস্তর ব্যবস্থা নেয়া হয়ে থাকে। তবে একটা ভালো খবর হলো, জেন্ডারমারী ফোর্সের আন্তর্জাতিক সংগঠন ‘এফআইইপি অ্যাসোসিয়েশন’ এর সদস্যপদ প্রাপ্তির প্রক্রিয়া চলছে। এর সদস্য হলে আনসার বাহিনীর সদস্যরা বিভিন্ন দেশের প্রশিক্ষণ লাভের মাধ্যমে নিজেদের উৎকর্ষতা বৃদ্ধির সুযোগ পাবে। বাহিনীও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পাবে। বর্তমানে এই সংগঠনের সদস্য দেশ হলো ১৯টি। 

২০১৭ সালে মন্ত্রণালয়ে দেয়া চিঠিতে তদন্তের ক্ষমতা এবং ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাব দেন পরিচালক ড. সাইফুর রহমান। 

তিনি বলেন, বিষয়টি মন্ত্রণালয়ের বিবেচনাধীন। আন্তঃমন্ত্রণালয়ের খসড়া প্রণয়ন মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তা তদন্তের জায়গায় হবে অনুসন্ধান। তবে সিআরপিসি অনযায়ী গত তিন দশক ধরে দেশের বিভিন্ন জেলায় নিয়মিতভাবেই ফৌজদারি এবং দেওয়ানি আদালত আনসার ভিডিপি অফিসারকে পুনঃতদন্তের দায়িত্ব দিলে সফলতার সঙ্গেই তারা পালন করে আসছেন। 

ভ্রাম্যমাণ আদালতে বিষয়ে তিনি বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের নিরাপত্তা সহযোগী হিসেবে আনসার সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন। তবে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করার মতো সক্ষমতা রয়েছে। 

Dream Sylhet
ড্রীম সিলেট
ড্রীম সিলেট
এই বিভাগের আরো খবর