রোববার   ২০ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৪ ১৪২৬   ২০ সফর ১৪৪১

৮৫

ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি,একে একে সব ধরব: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১ ০১ ৫২  

জাতীয় ডেস্ক:: দল ও সহযোগী সংগঠনগুলোর মধ্যে শুদ্ধি অভিযান প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কোনও নালিশ শুনতে চাই না।

ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি। একে একে সব ধরব। বৃহস্পতিবার রাতে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে ছাত্রলীগের নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে তিনি এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, সমাজের অসঙ্গতি এখন দূর করব। একে একে সবাইকে ধরতে হবে। আমি করব। জানি এগুলো কঠিন কাজ। কিন্তু করব। তার পরও আমি করবই।

ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য সন্ধ্যা ৬টার দিকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে যান।

এ সময় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক বিষয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগ নেতারাও উপস্থিত ছিলেন। তারা হলেন- দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আবদুর রহমান এবং সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও বি এম মোজাম্মেল হক।

বৈঠক সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, বাইরে থেকে অনেকে বডিগার্ড নিয়ে আসেন। তারা এত টাকা কোথায় পান? তাদের টাকার উৎস কোথায়?

আমি এই বিষয়গুলোও খুঁজে দেখার নির্দেশ দিয়েছি। ছাত্রলীগ নেতাদের তিনি বিভিন্ন নির্দেশনা দেন। প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগ নেতাদের প্রতিটি জেলায় সাংগঠনিক সফরে যাওয়ার নির্দেশ দেন। ছাত্রলীগের নেতাদের ‘স্টাডি সার্কেল’ করার বিষয়ে পরামর্শ দেন জাহাঙ্গীর কবির নানক।

বৈঠকের বিষয়ে জানতে চাইলে আবদুর রহমান  বলেন, সততা, সংযম, ধৈর্য এবং ত্যাগ-তিতিক্ষার নিদর্শন ছাত্রলীগ ইতোপূর্বে দেখিয়েছে। আগামীতেও সেই দীক্ষা নিয়েই তাদের চলতে হবে।

ছাত্রলীগের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস পুনরুদ্ধার করতে হবে। কোনো অনিয়ম কোনো অসঙ্গতি বরদাশত করা হবে না। অন্যায় করে কেউ ছাড় পাবে না।

সৌজন্য সাক্ষাতের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তানজিল ভূঁইয়া তানভীর, রেজাউল করিম সুমন, সোহান খান, আরিফিন সিদ্দিক সুজন, আতিকুর রহমান খান ও কাসফিয়া ইরা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ চৌধুরী, আরিফুজ্জামান আল ইমরান, শামস-ই-নোমান, মো. শাকিল ভূইয়া, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহম্মেদ, বেনজীর হোসেন নিশি, সাংগঠনিক সম্পাদক সাবরিনা ইতি, মামুন বিন সাত্তার ও সাজ্জাদ হোসেন।

এছাড়া ছাত্রলীগ ঢাবি শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন, ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি মো. ইব্রাহিম হোসেন ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি মো. মেহেদী হাসান প্রমুখ।

Dream Sylhet
ড্রীম সিলেট
ড্রীম সিলেট
এই বিভাগের আরো খবর